চলছে নীতিমালার কাজ
অনলাইন গণমাধ্যমের রেজিস্ট্রেশন সহসাই : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ১১:০১ অপরাহ্ণ, বুধ, ২২ মে ১৯

নিউজ ডেস্ক : অনলাইন গণমাধ্যমে শৃঙ্খলা তৈরীতে নীতিমালার কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আর এজন্যই আমরা সহসাই রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবো বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার (২২ মে) বিকালে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি।

হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা অনলাইনগুলোর রেজিস্ট্রেশন চালু করবো। বাংলাদেশে এখন অনলাইনগুলোর রেজিস্ট্রেশন নেই। এর জন্য কিছু তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়েছিল। সেগুলো করার পর রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার কথা ছিল, কিন্তু সেটা করা হয়নি। আমরা অনলাইনের রেজিস্ট্রেশন খুব সহসাই শুরু করবো এবং এটা খুব দেখে শুনে দেওয়া হবে।

এখানে শৃঙ্খলা আনা প্রয়োজন। অনেকেই একটা অনলাইন খুলে কয়েকজনকে সাংবাদিক কার্ড দিয়ে দেয় এবং অনলাইনটিকে ভিন্ন কাজে ব্যবহার করে। এজন্য অনলাইনের একটি রেজিস্ট্রেশন থাকা প্রয়োজন।

তিনি আরও বলেন, অনলাইন গণমাধ্যম এখন পাঠকপ্রিয়তা পাচ্ছে, মানুষের কাছে জনপ্রিয় হচ্ছে। সবার আগে সর্বশেষ সংবাদ দিতে গিয়ে যা হচ্ছে, অনেক ক্ষেত্রে সংবাদের বস্তুনিষ্ঠতা হারিয়ে যাচ্ছে, অনেক ক্ষেত্রে ভুল সংবাদ পরিবেশিত হচ্ছে, আবার অনেক ক্ষেত্রে কিছু ভুঁইফোড় অনলাইন ইচ্ছে করে কিছু সংবাদ পরিবেশন করে, যার মাধ্যমে তাদের পরিচিতি পায়। আমাদের এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে হবে

সেজন্য অনলাইন নীতিমালা করা হচ্ছে। আমরা ইতোমধ্যে তা করেছি কিন্তু এটাকে আইনে রূপান্তরিত করতে হবে। আইনে রূপান্তরের কাজটি চলছে, কিন্তু গণমাধ্যম নিয়ে আইন তৈরি করা অন্য যেকোনও আইন তৈরির থেকে ব্যতিক্রম। অন্য আইন তৈরি করতে সবার সঙ্গে আলোচনা সবসময় খুব বেশি প্রয়োজন হয় না। এজন্য আমাদের ধীরে এগুতে হচ্ছে।

তারপরও আমরা খুব দ্রুত এটি করার জন্য চেষ্টা করছি। আমরা আশা করছি আগামী কয়েক মাসের মধ্যে আইনটি তৈরি করতে পারবো।

বাংলাদেশে গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করে উল্লেখপূর্বক হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশের গণমাধ্যম যে স্বাধীনতা ভোগ করে তা অন্য দেশের গণমাধ্যম করে না। এরপরও নানা ধরনের প্রতিকূলতা আছে। সরকারের পক্ষ থেকে না থাকলেও অনেকের পক্ষ থেকে নানা ধরনের প্রতিকূলতা তৈরি হয়। আমি প্রথম থেকেই চেষ্টা করছি গণমাধ্যম যাতে স্বাধীনভাবে কাজ করে এবং এখানে যেন একটি স্বাস্থ্যকর অবস্থা বিরাজ করে।

সজা/এমএম

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ