অন্যায়কারী কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ৩:৪৪ অপরাহ্ণ, রবি, ১২ জানুয়ারি ২০

নিউজ ডেস্ক: অন্যায় করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা হুশিয়ারি দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, রাজনীতিবিদ কিংবা জনপ্রতিনিধি অন্যায়কারী যেই হোন শাস্তি আপনাকে পেতেই হবে। কেউ রেহায় পাবেন না।

রোববার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

নার্কোটিকস ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (এনআইএমএস) ওয়েবসাইট ও মাদকবিরোধী বিজ্ঞাপন উদ্বোধন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শুধু মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শুধু মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেননি, সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠার কথা বলেছেন। আর যারা মাদক বিক্রি করে অন্যায়ভাবে টাকা উপার্জন করেন, তারা সেটি অন্যায়ভাবেই ব্যয় করেন। অনেকে নির্বাচন করে জনপ্রতিনিধি সেজে নিজেকে জাহির করতে চান।

তিনি বলেন, সমাজের অধিপতি হোক, রাজনীতিবিদ হোক কিংবা নির্বাচনের জনপ্রতিনিধি হোক– অন্যায় করলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।

মাদকবিরোধী অভিযানের গতি কমে গেছে কিনা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অভিযান থেমে নেই। যারা মাদক ব্যবসা করেন, মাদক ব্যবসায়ে বিনিয়োগ করেন, বড় বড় মাদক সম্রাটদের সবাইকেই ধরা হয়েছে। আর যারা পলাতক রয়েছেন, তাদের ধরতে অভিযান অব্যাহত চলছে।

ধূমপানের বিরুদ্ধে আমরা রাস্তায় নেমে প্রচারণা চালিয়েছিলাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের প্রচেষ্টার কারণে ধূমপান অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। আজ কেউ প্রকাশ্যে ধূমপান করে না, করলে আড়ালে গিয়ে করে।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর ও কোরিয়ার সহযোগিতায় তৈরি নার্কোটিকস ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের উদ্বোধন করেন। এ ওয়েবসাইটটির মাধ্যমে অধিদফতরের কর্মকর্তারা যে কোনো জায়গা থেকে ল্যাপটপে বসে মামলার ফলোআপ, লাইসেন্স ম্যানেজমেন্ট, স্যাম্পল অ্যানালাইসিস ম্যানেজমেন্ট, অপারেশন ও হসপিটাল ম্যানেজমেন্টের কাজ করতে পারবেন। অধিদফতরের সেবা পেতে আগ্রহীরা দেশের যে কোনো প্রান্তে বসে আবেদন করে যে কোনো সেবা পেতে পারবেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ