অবশেষে খাশোগি হত্যার দায় স্বীকার করলেন সৌদি যুবরাজ

প্রকাশিতঃ ৩:২৩ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অবশেষে প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার দায় প্রকাশ্যে স্বীকার করলেন সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। মার্কিন টিভি চ্যানেল পিবিএস-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, খাশোগি হত্যার দায় তার নিজের, কারণ তার পর্যবেক্ষণ ও তত্ত্বাবধানে খাশোগি হত্যার ঘটনা ঘটেছে। সৌদি যুবরাজের ওই সাক্ষাৎকার আগামী ১ অক্টোবর সম্প্রচারিত হবে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। সৌদি আরবের রাজার ছেলে মুহাম্মাদ বিন সালমানই মূলত এখন দেশ পরিচালনা করছেন বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে।

এই প্রথম তিনি খাশোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করলেন। এর আগে তুরস্কের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোসহ বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছিল যে, যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সরাসরি নির্দেশে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। টিভি সাক্ষাৎকারে যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান ওই হত্যাকাণ্ডের সব দায় নিয়ে বলেন, আমার পর্যবেক্ষণে থাকা অবস্থায় এ ঘটনা ঘটেছে, আমি এর সব দায় নিচ্ছি কারণ আমার পর্যবেক্ষণে থাকা অবস্থাতেই ঘটনা ঘটেছে। জামাল খাশোগি হত্যার এক বছর পূর্তির আগে তিনি এ স্বীকারোক্তি দিলেন।

সৌদি যুবরাজের সমালোচক হিসেবে পরিচিত সাংবাদিক জামাল খাশোগি ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর মঙ্গলবার তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করার পর নিখোঁজ হন। সৌদি সরকার ১৭ দিন ধরে খাশোগির অবস্থান সম্পর্কে কোনো কিছু জানা থাকার কথা অস্বীকার করার পর তীব্র আন্তর্জাতিক চাপের মুখে অবশেষে ১৯ অক্টোবর স্বীকার করে যে, খাশোগিকে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে হত্যা করা হয়েছে।

সৌদি সরকারের হাতে আটক ও খুন হওয়ার আশঙ্কায় স্বেচ্ছায় দেশত্যাগ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছিলেন জামাল খাশোগি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাকে সৌদি কনস্যুলেটের মধ্যেই সৌদি গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হতে হয়।হত্যাকাণ্ডের দায়ে এক ডজনেরও বেশি সৌদি কর্মকর্তাকে আটক করা হলেও তুরস্কের তদন্তকারী কর্মকর্তারা তাদের হাতে থাকা তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে বলেছেন, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের সরাসরি নির্দেশে খুন হন জামাল খাশোগি। সূত্র : পার্সটুডে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ