আতঙ্কে বোরহানউদ্দিন

প্রকাশিতঃ ১২:২১ অপরাহ্ণ, সোম, ২১ অক্টোবর ১৯

নিউজ ডেস্ক: ফেসবুকে বিভ্রান্তিকর পোস্টের সূত্র ধরে রোববার ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশের সাথে সাধারণ মুসুল্লিদের সংঘর্ষে ৫ জন নিহত ও শতাধিক আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে। এনিয়ে গতকাল থেকেই পুর শহর জুড়ে সর্বস্তরে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ব্যবসায়ীরা তাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রেখেছে, শিক্ষার্থীরা তাদের বিদ্যালয়ে যাচ্ছে না, এছাড়া ও এখন পোর্যন্ত দূর পাল্লার কোন বাস ছেড়ে যেতে দেখা যায়নি।

বোরহানউদ্দিনে রোববার সমাবেশটি ডাকা হয়েছিল ‘তৌহিদী জনতার’ ব্যানারে। ভোলা-২ (বোরহানউদ্দিন-দৌলতখান) আসনের সাংসদ আলী আজম মুকুল জানান, এমন নামে কোনো সংগঠনের কথা আগে শোনা যায়নি। তার সঙ্গে কথা হয় বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার রুমে। তিনি আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির খোঁজ নিচ্ছিলেন।

দ্বীপ জেলা ভোলা এমনিতেই শান্ত। কিন্তু বোরহানউদ্দিনের সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে পুরো জেলায়। রোববার সন্ধ্যা বেলাতেই আলেমদের নতুন আরেকটি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটে। ‘সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্যপরিষদ’ নামে এ সংগঠনটি ছয় দফা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। পূর্ব ঘোষণা অনযায়ী সকাল ১১টায় ভোলা সদরের সরকারি স্কুল মাঠে তাদের একটি সমাবেশ হওয়ার কথা। তবে এ ব্যাপারে প্রশাসনের কোনো অনুমোদন নেওয়া হয়নি। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সমাবেশটি করতে দেওয়া হবে না।

ভোলা সদর থেকে বোরহানউদ্দিন পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার পথ চলার সময় কোনো গণপরিবহন দেখা যায়নি। রাস্তায় লোকজনের চলাচল নেই। সড়কের মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। আইনশঙ্খলা পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য চার প্লাটুন বিজিবি, এক প্লাটুন কোস্ট গার্ড, বেশ কিছু র‌্যাব সদস্য মোতায়েন করা হয়েছ। তবে বোরহানউদ্দিনের চেয়ে জেলা শহরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি বেশি। বুধবার সকাল অব্দি ভোলা সদর থেকে বোরহানউদ্দিন পর্যন্ত তেমন দোকানপাট খোলা হয়নি। বিশেষ করে ভোলায় সংখ্যালঘু হিন্দুদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা অনেকে বেশি। সেসব পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে গভীর আতঙ্ক বিরাজ করছে।

তবে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল বলেন, ‘দফায় দফায় আলেমদের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। আর কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হবে না বলে আশা করছি।যে চারজন রোববার মারা গেছেন তাদের পরিবার পরিজনের প্রতি তিনি গভীর সমবেদনা জানান।

তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জন্য ভোলাবাসীর অনেক উজ্জ্বল উদাহরণ রয়েছে। এখানে সবাইকে সম্প্রীতি রক্ষা করে চলতে হবে।

বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক যুবকের ফেসবুক থেকে বুধবার ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে বোরহানউদ্দিনে সংখ্যালঘু যুবকের বিচারের দাবিতে ‘তৌহিদী জনতা’র ব্যানারে বিক্ষোভ থেকে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর ব্যাপক সংঘর্ষ বাধে। একপর্যায়ে পুলিশের গুলিতে এক কিশোরসহ ৫ জন নিহত হন। দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে ১০ পুলিশ সদস্যসহ শতাধিক মানুষ আহত হন। সংঘর্ষ চলাকালে উত্তেজিত জনতা বোরহানউদ্দিন বাজারে ভাওয়ালবাড়ির একটি মন্দির ও সাতটি ঘর ভাঙচুর করে।

হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির একটি স্ট্ক্রিনশট ভাইরালের বিষয়ে পুলিশ জানায়, বিপ্লব নামের ওই যুবকের হ্যাক হওয়া আইডি থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার বক্তব্য ছড়ানোর ঘটনা থেকে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ