আবরার হত্যাকান্ডে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা: আনিসুল হক

প্রকাশিতঃ ১২:৫৫ পূর্বাহ্ণ, শুক্র, ১১ অক্টোবর ১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী: আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক দাবি করে বলেন, বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের অপরাধী সে যে দলেরই হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নোয়াখালীতে নব নির্মিত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের তদন্ত শেষে যাদের নাম বেরিয়ে আসবে তাদের সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, আশা করি তদন্তে অভিযুক্তদের সনাক্ত করা সম্ভব হবে। অভিযোগপত্র পাওয়ার পর কোন আদালতে বিচার হবে তা তখনই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ভবনের উদ্বোধন বিচার বিভাগের জন্য একটি স্মৃতি চিহ্ন হয়ে থাকবে। আগামী ৫০ বছরে এজলাসের অভাবে বিচারের প্রহর গুনতে হবে না। দ্রুত মামলা নিষ্পত্তির লক্ষ্যে গত ১০ বছরে ১ হাজার ২৮ জন বিচারক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সরকারের উন্নয়নে বলেন, উন্নয়ন হচ্ছে একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। এ প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। এই পর্যন্ত ২৬টি জেলায় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ভবনের উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে বিচার বিভাগের আর অবকাঠামোগত সমস্যা থাকবে না।

বিচারকদের প্রশিক্ষণে বলেন, আগে বিচারকদের বিদেশে কোন প্রশিক্ষণের গ্রহনের সুযোগ ছিল না। এ সরকার বিচারকদের বিদেশে গিয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহনের সুযোগ সৃষ্টি করেছে। মামলা জটের বিষয়টি দীর্ঘদিনের। এটি এক দিনে হয় নাই। বিরোধ নিষ্পত্তি মাধ্যমে আসতে আসতে মামলার জট কমবে এবং জনগন ন্যায় বিচার পাবে।

বর্তমান সরকারের ন্যায় বিচার দাবি করে বলেন, পাকিস্তান আমলে বঙ্গবন্ধু ন্যায় বিচার পাননি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বিচার বিভাগের প্রতি সংবেদনশীল এবং শ্রদ্ধাশীল। বারও বেঞ্চের সম্পর্ক ভালো থাকলে জনগণ ন্যায় বিচার পেতে সহায়ক হবে। সরকার চায় জনগণ যেন দ্রুত বিচার পান।

নোয়াখালী-৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদাউস মন্ত্রীকে জানান, গত ৫ বছর যাবৎ হাতিয়া আদালত ভবন নেই। এ দাবিটি আমি গত ৫ বছর ধরে জানিয়েছি। আদালতের নিজস্ব ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণার পর থেকে অন্য একটি ভবনের দুই কক্ষে ছোট্ট পরিসরে আদালতের কাজ চলছে। এতে বিচারক ও বিচারপ্রার্থীরা চরম ভোগান্তির শিকার।

এমপি’র এ দাবির প্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই হাতিয়া আদালত ভবন নির্মাণ কাজ হাতে নেওয়া হবে।

জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী, নোয়াখালী-৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদাউস, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ফরিদা খানম, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব গোলাম সারওয়ার সহ প্রমূখ।

সময় জার্নাল / রাসেল মাহম্মুদ

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ