আবরার হত্যার প্রতিবাদে জগন্নাথে মশাল মিছিল

প্রকাশিতঃ ১২:৩২ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ৮ অক্টোবর ১৯

জবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরে বাংলা হলের আবসিক শিক্ষার্থী আবরারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মশাল মিছিল করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

গত ৭ অক্টবর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বাহাদুরশাহ্ পার্ক, শাঁখারী বাজার মোড় ও কবি নজরুল কলেজ রোড হয়ে ক্যাম্পাসে এসে শেষ হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীদের স্লোগানে মূখরিত হয়ে উঠে জবি ক্যাম্পাস ও আশপাশের রাস্তাঘাট। তাদের স্লোগানের মধ্যে ছিলো- ‘আমার ভাই মরল কেন, প্রশাসন জবাব চাই’, ‘হলে হলে সন্ত্রাস, রুখ দাঁড়াও ছাত্র সমাজ’, ‘দিয়েছি রক্ত, আরও দেবো রক্ত’, ‘রক্তের বন্যায় ভেসে যাবে অন্যায়’, ‘শিক্ষা, ছাত্রলীগ, একসাথে চলে না’, ‘ছাত্রলীগের কালো হাত, ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও’, ‘জেগেছে রে জেগেছে ছাত্র সমাজ জেগেছে’ এ ধরনের বিভিন্ন স্লোগান।

এর আগে আবরার হত্যার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল হয়। বিকালের দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে হত্যায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মিছিল রেব করেন। এছাড়া জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন বিবিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবাদ মিছির হয়েছে। এদিকে আবরার হত্যার সময়কার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ গায়েব করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। প্রতিবাদে হল প্রভোস্ট অফিস ঘিরে বিক্ষোভ করেছেন বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, শিবির সন্দেহে আবরারকে রবিবার রাত আটটার দিকে হলের ২০১১ নম্বর কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে যান বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে রাত আড়াইটার দিকে হলের সিঁড়ির পাশে আবরারের দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ভোরে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মারধরের সময় ২০১১ কক্ষে উপস্থিত ছিলেন বুয়েট ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক আশিকুল ইসলাম বিটু। তিনি বলেন, আবরারকে শিবির সন্দেহে রাত আটটার দিকে হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে আনা হয়। সেখানে আমরা তার মোবাইলে ফেসবুক ও মেসেঞ্জার চেক করি। ফেসবুকে বিতর্কিত কিছু পেইজে তার লাইক দেয়ার প্রমাণ পাই। এক পর্যায়ে আমি রুম থেকে বের হয়ে আসি। এরপর হয়তো তাকে মারধর করে থাকতে পারে। পরে রাত তিনটার দিকে শুনি আবরার মারা গেছে।

সময় জার্নাল/ আব্দুল্লা পাটোয়ারী

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ