আলোচিত রিশা হত্যায় ওবায়দুলের ফাঁসি

প্রকাশিতঃ ৫:০২ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১০ অক্টোবর ১৯

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর কাকরাইলের উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের শিক্ষার্থী সুরাইয়া আক্তার রিশা (১৫) হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করেছেন আদালত। এই মামলার একমাত্র আসামি ওবায়দুল খানকে ফাঁসির রায় দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশের আদালতে আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেওয়া হয়। মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি আসামিকে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

রায় শুনে সন্তোষ প্রকাশ করলেও মেয়ের জন্য আদালতেই কান্নায় ভেঙে পড়েন রিশার মা তানিয়া বেগম।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী তাপস কুমার পাল জানান, দুপুর ২টা ৫৫ মিনিটে আসামি ওবায়দুল খানকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর বিচারক রায় পড়া শুরু করেন। রায় ঘোষণার সময় রিশার মা ও তার ছোট বোন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ১১ সেপ্টেম্বর শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য ৬ অক্টোবর দিন ধার্য করেছিলেন আদালত। তবে ওইদিন আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির না করায় রায় ঘোষণা করা হয়নি। পরবর্তী রায় ঘোষণার জন্য ১০ অক্টোবর দিন ধার্য করেন বিচারক।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের শুরুর দিকে ইস্টার্ন মল্লিকা শপিং কমপ্লেক্সের বৈশাখী টেইলার্সে পোশাক বানাতে দেয় রিশা। ওই টেইলার্সের রসিদে বাসার ঠিকানা ও তার মায়ের মোবাইল নম্বর দেওয়া ছিল। সেখান থেকে মোবাইল নম্বর নিয়ে টেইলার্সের কাটিং মাস্টার ওবায়দুল রিশাকে উত্ত্যক্ত করা শুরু করে। পরে ফোন নম্বরটি বন্ধ করে দিলে স্কুলে যাওয়ার পথে রিশাকে উত্ত্যক্ত করতে থাকে সে। তার প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় রিশাকে ছুরিকাঘাত করে ওবায়দুল।

ওই ঘটনায় রিশার মা তানিয়া বেগম ওবায়দুলকে আসামি করে রমনা থানায় মামলা করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চারদিন পর ২৮ আগস্ট রিশা মারা যায়। পরে মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়।

রিশা রাজধানীর বংশাল থানাধীন সিদ্দিকবাজার এলাকার ব্যবসায়ী রমজান হোসেনের মেয়ে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ