আসামের ঘটনা পর্যবেক্ষণ করছি, সতর্ক আছি: সেতুমন্ত্রী 

প্রকাশিতঃ ৪:০৪ অপরাহ্ণ, রবি, ১ সেপ্টেম্বর ১৯

আসামে ১৯ লাখ মানুষকে নাগরিকত্বের তালিকা থেকে বাদ দেয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার সতর্ক রয়েছে এবং বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
রোববার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ কথা জানান।
আসামের ১৯ লাখ মানুষ নাগরিকত্বের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আসাম আমাদের একেবারে নিকটতম প্রতিবেশী, কাজেই আমরা বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি। তবে বিষয়টি একেবারেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।’
তিনি বলেন, ‘আমরা এটা পর্যবেক্ষণ করছি এই কারণে যে যাচাই-বাছাইয়ের একটা প্রক্রিয়া আছে, উচ্চ আদালতে আপিলের একটা সুযোগ আছে। বিষয়টি সম্পর্কে এই মুহূর্তে চূড়ান্ত মন্তব্য করার কোনো সুযোগ নেই।’
ভারতের মন্ত্রীরা বলছেন, বাদ পড়ারা বাংলাদেশি, তাদের বাংলাদেশে যেতেই হবে। ভারতীয় গণমাধ্যমও বলছে এরা বাংলাদেশি। এ বিষয়ে সরকার প্রস্তুত কি-না, জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমরা সতর্ক আছি, পর্যবেক্ষণ করছি।’
রোহিঙ্গা ও আসাম ইস্যু মিলিয়ে বাংলাদেশ ভূ-রাজনৈতিক গুটি হতে যাচ্ছে কি-না, এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘দেখুন বাংলাদেশ এখন অর্জন-উন্নয়নে বিশ্বে অনেকেরই ঈর্ষার টার্গেট। কাজেই বাংলাদেশকে নিয়ে সমীহ আছে, ভূ-রাজনৈতিক বিষয় তো আছেই। এটা আগেও ছিল, এখন আরও বেশি হয়েছে। কারণ বাংলাদেশ এখন একটি সমীহ করার মতো দেশ। বাংলাদেশের জিডিপি এখন দক্ষিণ এশিয়ায় নাম্বার ওয়ান, আইএমএফ পর্যন্ত এই কথা স্বীকার করেছে।’
সেতুমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন দেশের যাদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় আছে, তাদের চিন্তা-ভাবনা থাকতেও পারে। ভূ-রাজনৈতিক বিষয়টিকে উপেক্ষা করারও কোনো কারণ নেই। তবে আমরা সতর্ক আছি, প্রস্তুত আছি। যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য আমরা তৈরি আছি। আমরা তো কারও সঙ্গে যুদ্ধ করতে যাচ্ছি না। আমরা পিসকে ওন করার চেষ্টা করছি। যে কোনো সমস্যা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারো সঙ্গে শত্রুতা নয়’ এই নীতির ভিত্তিতে আমরা আলাপ আলোচনা করে সমস্যা সমাধান করতে চাচ্ছি। তবে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র সম্পর্কে আমরা সতর্ক আছি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ