উপাচার্য ভবনের সামনে আন্দোলনকারীদের অবস্থান

প্রকাশিতঃ ৫:৩৭ অপরাহ্ণ, বুধ, ৬ নভেম্বর ১৯

জাবি প্রতিনিধিঃ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তার বাসভবনে ফের অবস্থান নিয়েছে আন্দোলনকারীরা।

বুধবার বিকেল পাঁচটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে এক বিক্ষোভ মুছিল নিয়ে বাস ভবনের সামনে অবস্থান নেন।

এর আগে দুপুরে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর সমাবেশে আয়োজিতে এক সংহতি সমাবেশে এ ঘোষণা দেন সংঘঠনের মুখপাত্র অধ্যাপক রায়হান রাইন।

তিনি বলেন, ‘গতকাল আমাদের ওপর উপাচার্যপন্থী শিক্ষকেরা প্রথমে হামলা চালায়। এরপর তাদের প্রত্যক্ষ মদদে ছাত্রলীগ আমাদের ওপর হামলা করে। এই উপাচার্যকে কোনোভাবেই আর ক্ষমতায় রাখা যাবেনা। তাকে অপসারণের লক্ষ্যে আমরা বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তার বাসভবনের সামনে গিয়ে অবস্থান নেব।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশের অবস্থান।

সংহতি সমাবেশে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘এই উপাচার্যের বিষয়ে সরকার দ্রুত সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে আশা করছি। আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষক ব্যবসায়ী ও পুলিশের ভূমিকা নিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে এধরণের শিক্ষক থাকতে পারেননা। উপাচার্য ছাত্রলীগের হামলাকে গণ অভূত্থান বলেছেন। কিন্তু প্রকৃত গণ অভূত্থান ঠেকাতে তিনি হল বন্ধের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। ঠিকাদারের সাথে টাকা ভাগ-বাটোয়ারা করার মতো ভিসি যেন আর নিয়োগ না পায়। সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন না হলে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়কে বাঁচানো যাবেনা।

সমাবেশে অন্যদের বক্তব্য রাখেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক তানজিম উদ্দিন খান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূইয়াসহ বিভিন্ন বিভাগের আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

সময় জার্নাল/ সাকিল ইসলাম

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ