ওসিসহ ৫ পুলিশের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ১:১৮ অপরাহ্ণ, সোম, ৫ আগস্ট ১৯

নিউজ ডেস্ক: খুলনার জিআরপি থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) ওসমান গনি পাঠান ও এক উপ-পরিদর্শক (এসআই)সহ ও তিন কনস্টেবলের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মাদক মামলার আসামি হিসেবে আদালতে তোলার পর বিচারকের সামনে পুলিশের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেন এক নারী। অভিযোগের ভিত্তিতে ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এদিকে, ঘটনা ধামাচাপা দিতে ওসি ওসমান গনি ওই পরিবারকে মোটা অঙ্কের টাকা প্রদানের প্রস্তাব দিয়েছেন বলেও ওই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে।

ওই নারীর দুলাভাই জানান, গত শুক্রবার তার শ্যালিকা (২১) যশোর থেকে ট্রেনে খুলনায় আসলে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রেলস্টেশনে কর্তব্যরত জিআরপি পুলিশের সদস্যরা তাকে সন্দেহজনকভাবে ধরে নিয়ে যায়। পরে গভীর রাতে জিআরপি পুলিশের ওসি ওসমান গনি পাঠান প্রথমে তাকে ধর্ষণ করেন। পরের আরও ৪ পুলিশ কর্মকর্তা তার শ্যালিকাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন।

পরদিন শনিবার ওই নারীকে ৫ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার দেখিয়ে মাদক মামলায় আদালতে তোলা হয়। কিন্তু আদালতে বিচারকের সামনে ওই নারী জিআরপি থানায় তাকে পালাক্রমে গণধর্ষণের অভিযোগ করেন। এরপর আদালতের বিচারক জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষা করার নির্দেশ দেন।

তবে ওই নারীর অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবি করেছেন ওসি ওসমান গনি। তিনি বলেন, মাদক মামলা থেকে রেহাই পেতে ওই নারী এ ধরনের অভিযোগ তুলছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ