করোনায় দরিদ্রদের পাশে তিতুমীরের গনিত বিভাগের শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিতঃ ৯:৩৭ অপরাহ্ণ, শনি, ১১ এপ্রিল ২০

মাইদুল মুশফিক,সরকারি তিতুমীর কলেজ : পুরো পৃথিবীর মতো কার্যত লকডাউন বাংলাদেশ।স্থবির হয়ে পড়েছে সকল কার্যক্রম।আয় রোজগার বন্ধ থাকায় অসহায়, দিনমজুর, দরিদ্র মানুষেরা পড়েছে খাদ্য সংকটে।এমতাবস্থায় আজ ১১এপ্রিল(শনিবার) ৩৩ দরিদ্র পরিবারকে খাদ্য প্রদান করলো সরকারি তিতুমীর কলেজ গনিত বিভাগ প্রথম বর্ষের তরুন শিক্ষার্থীরা।

“মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য”। দেশের মানুষের এ সংকট বিপদের মুহূর্তে বসে নেই দেশের তরুন সমাজ।যার যার জায়গা থেকে এগিয়ে আসছে মানুষের সহযোগিতায়।অনেক তরুন শিক্ষার্থী কাজ করছেন সেচ্ছাসেবী হিসেবে।কেউ খাবার পৌঁছে দিচ্ছে দরিদ্র মানুষের কাছে।বিভিন্ন সংগঠনের হয়ে বা নিজেদের উদ্যোগে বন্ধুবান্ধব এবং পরিচিতরা মিলে একসঙ্গে এসব কাজ করছেন তরুনরা।

সরকারি তিতুমীর কলেজের গনিত বিভাগ প্রথম বর্ষের(২০১৯-২০) সেশনের শিক্ষার্থীরা নিজেদের উদ্যোগে টাকা সংগ্রহ করে দরিদ্র মানুষ যারা এ লকডাউন অবস্থায় আয়রোজগার বন্ধ, পরিবার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে। এমন ৩৩ টি পরিবারকে সহয়তা করেন।

প্রতিটি পরিবারের জন্য,
৩ কেজি চাল
১.৫ কেজি আলু
১ কেজি আটা
০.৫ কেজি তেল
০.৫ কেজি পিয়াজ
০.৫ কেজি ডাল
প্রদান করা হয়।

সবাইকে নিজ নিজ জায়গা থেকে দরিদ্র মানুষের পাশে দ্বারানোর আহবান এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে কাজ করা শিক্ষার্থীদের। মোহাম্মদ শাকিল বলেন,সবাই জানি।দেশের এই পরিস্থিতিতে নিম্ন বিত্ত ও মধ্য বিত্ত মানুষদের দু’বেলা দুমুঠো খেয়ে বেঁচে থাকাটাই এখন সংগ্রামের।

আমাদের (১৯-২০)সেশন থেকে ছোট্ট একটি প্রয়াস নিয়েছি মাত্র সেইসব মানুষদের পাশে দাড়িয়ে, আমরা আমাদের ব্যাচের ছাত্রছাত্রী দের কাছ থেকে টাকা তুলে প্রথম দফায় ৩৩ টা পরিবারের কয়েকদিনের জন্য হলেও দায়িত্ব নিতে সক্ষম হয়েছি,আমার সকলের কাছে একটাই অনুরোধ দেশের এই অবস্থায় আমরা সকলেই যাদের সামর্থ আছে সেসব মানুষদের পাশে দাড়াই যারা পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন।

মারজিয়া মিতু নামের শিক্ষার্থী বলেন, আমরা এ পরিস্থিতিতে দরিদ্র মানুষের জন্য, ঘরে বসেই কয়েকদিন ধরে এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে অনলাইনের মাধ্যমে টাকা উঠিয়েছি।যেহেতু আমরা সবাই শিক্ষার্থী তাই আমাদের জমানো টাকা থেকে যতটুকু সাধ্য ছিল আমরা চেষ্টা করেছি।আমরা অনেকেই এ উদ্যোগ ছাড়াও আগে অন্য সংগঠনের হয়ে দরিদ্র মানুষদের সহয়তায় সাহায্য করেছি।

সোহেল রানা জানান,দেশের এই ক্রান্তি লগ্নে আমাদের মত ছাত্র ছাত্রীদের এগিয়ে আসা উচিত আমি মনে করি। শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হলো একে উপরের সহযোগিতা করা।বর্তমানে অনেক পরিবার না খেয়ে আছে,তাই আমরা নিজেরা টাকা তুলে কিছু পরিবারকে সহয়তা করলাম।আমি সবাইকে তার নিজ নিজ উদ্যোগ সবার পাশে আসার অনুরোধ করছি।

এছাড়াও তিতুমীর কলেজ বিতর্ক ক্লাব(জিটিসি-ডিসি), তিতুমীর কলেজের আশেপাশে অসহায় মানুষদের সহয়তা এবং মহামারীকালীন তিতুমীর কলেজের কোন শিক্ষার্থীদের সাহায্যের প্রয়জন হলে, সহযোগিতা করার উদ্যোগ নিয়েছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ