করোনায় মানসিক স্বাস্থ্য সেবা দিতে সাবকা’র ‘সুহৃদ সংলাপ’ চালু

প্রকাশিতঃ ৫:২৪ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৫ জুন ২০

সময় জার্নাল প্রতিবেদক : মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্বজুড়ে আজ শুধুই হাহাকার। চারিদিকে শুধু মৃত্যু, রোগ আর চাকরি হারানোর চিৎকার। করোনা এমন এক সংকট তৈরি করেছে যা নজিরবিহীন। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের বিস্তার ঠেকানোর জন্য প্রায় পুরো বিশ্বজুড়ে চলছে লকডাউন। লকডাউনের কারণে কাজ হারিয়ে ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিশেহারা বহু মানুষ।

এই পরিস্থিতিতে সাউথ অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশিদেরও ব্যক্তিগত জীবনের পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। এই প্রভাব কাটিয়ে উঠতে ‘সুহৃদ সংলাপ’র আয়োজন করেছে সাউথ অস্ট্রেলিয়ান বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশন (সাবকা)।

এ প্রসঙ্গে সাবকা‘র চেয়ারপারসন মোহাম্মদ তারিক সময় জার্নালকে বলেন, করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই আমরা বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়ে বাংলাদেশী কমিউনিটির পাশে ছিলাম। এরই ধারাবাহিকতায় করোনা পরবর্তী সময়ে হতাশা কাটিয়ে উঠতে আমাদের এই আয়োজন। করোনায় বন্দী জীবনে প্রতিনিয়তই সবার মানসিক চিন্তার পরিবর্তন ঘটছে। মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা কাটিয়ে কীভাবে সুস্থ থাকা যায় সেবিষয়ে আমাদের বিশেষজ্ঞ টিম পরামর্শ দিবে। কারণ এই দুর্যোগে মানসিকভাবে সুস্থ থাকাটাই এখন সবচাইতে বড় চ্যালেঞ্জ।

মি. তারেক বলেন, করোনার এই দুর্যোগে ইমোশনকে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে এবং এর প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে সঠিক তথ্য জেনে নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে। কিন্তু আমরা যদি শুধু করোনাভাইরাস নিয়েই পড়ে থাকি, তাহলে আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে। দুর্যোগে নিজেকে সর্বোচ্চ ভাবে মানিয়ে নেওয়ার উপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

কমিউনিটির সদস্যদের উদ্দেশ্যে মি. তারেক বলেন, আপনি যদি চাকরি হারানো, পড়াশোনায় ব্যাঘাত কিংবা আর্থিক সংকট ইত্যাদি নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকেন তাহলে আমাদের টিম ‘সুহৃদ সংলাপ’ -এ ফোন দিয়ে যোগাযোগ করতে পারেন। তারা আপনাকে আমাদের অন্যান্য সেবা যেমন- ক্যারিয়ার কাউন্সিলিং, পরিবহণ সেবাসহ অন্যান্য সেবা পেতে সাহায্য করবে। এমনকি শুধুমাত্র আড্ডার জন্য হলেও আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

যোগাযোগ : ডা. আনিস ০৪০৩৭২১২৮৫, মি. তাজ ০৪০৬১০৬৪৪০, মি. তারেক ০৪০৪০৫৭৮৯৯।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।