করোনা আতঙ্কে যশোরে নিত্যপন্যের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি

প্রকাশিতঃ ২:১২ অপরাহ্ণ, শনি, ২১ মার্চ ২০

টি আই তারেক, যশোর সংবাদদাতা: যশোরের কাঁচাবাজারগুলোতে করোনার অজুহাতে নিত্যপন্যের মূল্য অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। একটি অসাধু সুযোগ সন্ধানী ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট বাজারে মালামাল কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে চাল, ডাল, আলু, পেয়াজ, রসুন, আটা, ময়দা, হ্যান্ড ওয়াশ, টিস্যু পেপারসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য অস্বাভাকিভাবে দাম হাকাচ্ছে।

করোনা আতঙ্কে সাধারণ মানুষ অতিরিক্ত পন্য কেনার কারনে এরই মধ্যে বাজারে কৃত্রিম সংকট দেখা দিয়েছে, ফলে যশোরসহ আশে পাশের বাজারগুলোতে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

আতঙ্কগ্রস্থ মানুষ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের তীব্র সঙ্কটের আশঙ্কায় জিনিসপত্র কিনছে হুমড়ি খেয়ে।

আর এ সুযোগে একটি অসাধু ব্যবসায়ী মহল বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিতে সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

শুক্রবার যশোরের বড় বাজার ঘুরে দেখা গেছে, চালের দাম হু হু করে বেড়েই চলেছে গত ৩-৪ দিনে চিকন চাউলে কেজি প্রতি ৫-৬ টাকা এবং মোটা চালে ৭-৮ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

১ দিনের ব্যবধানে ৩৫ টাকার পেয়াজ ৬০ টকায় বিক্রয় হচ্ছে, রসুন, আদা, আলু, মরিচ সব কিছুর মূল্য বৃদ্ধি। ৬০ টাকার চিনি ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাজার করতে আসা মহসিন বলেন, আমরা গরিব মানুষ দিন আনি দিন খাই কিন্তু নিত্য পণ্যে দাম এমন হারে বাড়তে থাকলে আমরা পরিবার না খেয়ে দিন কাটাতে হবে।

সময় জার্নাল/সালেহ আহমেদ

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ