কাবুলে বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলায় নিহত ২০, আহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশিতঃ ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ, রবি, ১৮ আগস্ট ১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি বিলাসবহুল হোটেলে বিয়ের অনুষ্ঠানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও অর্ধশত মানুষ।

শনিবার (১৭ আগস্ট) রাত স্থানীয় সময় ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে শহরের পশ্চিমে শিয়া অধ্যুষিত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এক আত্মঘাতী হামলাকারী বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা চালানোর পর তারা অনেক লাশ পড়ে থাকতে দেখেছেন। খবর বিবিসি, সিএনএন ও আলজাজিরার।

আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসরাত রাহিমি বোমা হামলায় বহু হতাহতের খবর নিশ্চিত করলেও তিনি সঠিক সংখ্যা জানাতে পারেননি।

কাবুলের পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় অন্তত ২০ জন নিহত ও ৪৫ জন আহত হয়েছে। কোনো কোনো সূত্র অবশ্য নিহতের সংখ্যা অর্ধশত বলে দাবি করছে।

তবে সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হতাহতের সংখ্যা বাড়ারও খবর দিচ্ছে কর্তৃপক্ষ। পশ্চিম কাবুলের শিয়া অধ্যুষিত ৬ নম্বর ওয়ার্ডের শাহরে দুবাই হোটেলে শনিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪০ মিনিটে এ হামলা চালানো হয়।

বিয়ের অনুষ্ঠানে নারী ও পুরুষদের জন্য আলাদা হল বরাদ্দ ছিল এবং পুরুষদের হলে বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

এখনো কোনো গোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি, তবে উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান ও আইএস আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের শিয়া হাজারা জনগোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে মাঝেমধ্যেই এ ধরনের হামলা চালিয়ে থাকে।

শুক্রবার পাকিস্তানের কোয়েটা শহরের কাছে একটি মসজিদে পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে তালেবান নেতা হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদার একজন ভাই নিহত হন।

হামলার সময় হাইবাতুল্লাহর ওই মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করার কথা ছিল এবং তাকে নিশানা করেই বোমা পেতে রাখা হয়েছিল বলে পুলিশ ধারণা করছে।

পাকিস্তানে তালেবান নেতার ভাই নিহত হওয়ার একদিন পর কাবুলের শিয়া অধ্যুষিত এলাকার হোটেলে বিয়ের অনুষ্ঠানে ভয়াবহ এ হামলা চালানো হলো।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ