কি করে বুঝবেন কখন আপনার মানসিক সাপোর্ট একান্ত প্রয়োজন?

প্রকাশিতঃ ৪:৫৮ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২৭ ডিসেম্বর ১৯

তানিয়া হাসান, কাউন্সেলিং সাইকোলজিস্ট:

বেশির ভাগ মানুষেরই ধারণা যতক্ষণ না মানসিক পরিস্থিতি জটিল হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত এনিয়ে মাথা ঘামাবার কোনো দরকার নেই। কিন্তু, সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের জন্য শারীরিক অসুস্থতায় ডাঃ দেখানো যতটা জরুরী ঠিক ততটাই জরুরী মানসিক অস্থিরতার ও সমস্যা থিক মুক্ত থাকার জন্য Counselling Therapist এর পরামর্শ নেয়া। কিন্তু, কি করে বুঝবেন কখন আপনার Therapist এর support একান্ত প্রয়োজন।
যখন;

সব কিছুই ঠিক আছে তবুও প্রতি দিন ঘুম ভাঙলে মনে হয় শরীরটা যেন আপনার বশে নেইঃ হয়তো দীর্ঘ দিন ধরেই আপনার এমন লাগছে কিন্তু কোন কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না। অন্যরা শুনলে হয়ত বলবে সুখে থাকতে ভূতে কিলাচ্ছে কিন্তু, আপনি কিছুতেই এমন অবস্থা কাটিয়ে উঠতে পারছেন না। যে যাই বলুক আপনার মনে খুঁত খুঁত করতে থাকে কিছু একটা সমস্যা নিশ্চয়ই হয়েছে – – – – আপনার মন কিন্তু ভুল বলে না!

যা কিছুই করছেন সব ভুল যেন আপনি অন্য কারও জীবনযাপন করছেনঃ কোনো কিছুই মন মতো হচ্ছে না এ জীবন বোঝার মতো লাগছে আপনার অন্য কিছু করবার কথা ছিল, আপনার দুর্ভাগ্য কিছুতেই আপনার পিছে ছাড়ছে না – – – – এসব চিন্তা বা অনুভূতির পিছনে কিন্তু যথেষ্ট কারণ থাকতে পারে।

আপনার প্রায়ই মনে হচ্ছে একটা চক্রের মধ্যে ঘুরছেন, একই ভুল বার বার হচ্ছেঃ প্রায়ই বন্ধুদের সংগ অসহ্য লাগে, কোনো চাকরী খুব বেশিদিন ভাল লাগে না, সবগুলো কর্মক্ষেত্রে বস/ কলিগদের সাথে একই ধরনের সমস্যা হচ্ছে, বারবারই কি ভুল সম্পর্কে জড়িয়ে যাচ্ছেন বা সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে পারছেন না, বন্ধুরাও আপনাকে নিয়ে খুশি নয়?

প্রায় সময়ই মাথা/ পেট/ শরীর ব্যথা করে কিন্তু ডাঃ কোনো অসুখই খুঁজে পায় নাঃ বহু বছর ধরেই মনো-গবেষকরা বলছেন, মানুষের বেশির ভাগ শারীরিক অসুখ মানসিক চাপ থেকে সৃষ্টি হয় যেমন; ক্ষুধা মন্দা বা অতিরিক্ত খাবার প্রবণতা, হজমের গোলমাল, মাথা ব্যথা, সারা শরীরে ব্যথা, গরমেও ঠাণ্ডা অনুভূতি, যৌন আগ্রহ কমে যাওয়া— – – যখন চিকিৎসায়ও নিরাময় হচ্ছে না তখন ভাবুন কেন এমন হচ্ছে।

কোনো কিছুই সময় মতো করা হয়ে ওঠে না, সব সময় একটা হাল ছেড়ে দেয়া ভাবঃ আপনার কি আত্মবিশ্বাসের যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে?

নিজের কোনো কিছুই পছন্দ হয় নাঃ যদিও আত্ম-সমালোচনা করা ও নিজেকে উন্নত মানুষ হিসাবে বদলাবার ইচ্ছে খুব ভাল স্বভাব কিন্তু, যত চেষ্টাই করেন না কেন নিজের কোনো কিছুই কি আপনাকে সুখী করে না? আবার, অন্যরাও কি আপনাকে প্রায়ই সমালোচনা করেন?

সব সময় অপরাধ বোধে ভুগছেনঃ আপনি কি খুবই নরম স্বভাবের মানুষ, সহজেই কি আপনাকে দোষী সাব্যস্ত করে অন্যরা কিবা, আপনি নিজেই সামান্য কারণে বা অকারণে নিজেকে দোষী ভাবেন?

* কিছুতেই নিজের আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন নাঃ অল্পতেই রেগে যাচ্ছেন, ধৈর্য হারিয়ে ফেলছেন, মন খারাপ লাগছে, একটুতেই চোখে পানি এসে যাচ্ছে, মেজাজ সব সময়ই খিটখিটে লাগছে?
সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা কঠিন হচ্ছেঃ আপনার পারিবারিক/ সামাজিক/ বৈবাহিক সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে কি আপনি হিমশিম খাচ্ছেন?

* মানুষের সাথে মিশতে অস্বস্তি বোধ করেনঃ ধরুন কোনো মিটিঙে যাবেন বা বন্ধুদের সাথে আড্ডা মারবার প্ল্যান রয়েছে বা ডেটিঙে যাবার কথা রয়েছে – – – আপনি কি খুব বেশী মাত্রায় নার্ভাস ফিল করেন, আপনার হাত পা কাঁপতে থাকে, গলা শুকিয়ে আসে বুক ধড়ফড় করতে থাকে? এমন কি পরিবারের মানুষের সাথেও মন খুলে মিশতে অস্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

* কেবলই সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগেনঃ তুচ্ছ বিষয়ে সিধান্ত নিতেও কি আপনার খুব বেগ পেতে হয়, অন্যদের সাহায্য লাগে?

* কোনো বিপর্যয় ঘটলেঃ প্রিয়জনের মৃত্যু/ চোখের সামনে ঘটে যাওয়া কোনো অ্যাকসিডেন্ট / মিসকারেজ হলে/ শারীরিক বা মানসিক ভাবে কেউ যদি আপনাকে শিশুকালে নিগ্রহিত করে থাকে/ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা কর্ম ক্ষেত্রে কেউ যদি অন্যায় ব্যবহার করে- – আপনি যদি কিছুতেই নিজেকে সামলাতে না পারেন।

নিজেকে মানসিক ভাবে শক্তিশালী করতে চাইলে বা নিজেকে সঠিক ভাবে অনুধাবন করতে চাইলে।
আমাদের সবারই হয়ত কম বেশি এমন ধরনের সমস্যা, কোন না কোন সময় হতে পারে। তবে, তখনই আমাদের সতর্ক হওয়া প্রয়োজন যখন দেখা যায় যে, দীর্ঘ দিন ধরে এই সমস্যাগুলো আমাদের কষ্ট দিতে থাকে, জীবনের জটিলতা আরও বাড়তে থাকে— – – তাহলে আর দেরি না করে অতি-অবশ্যই Professional help নিন।

তানিয়া হাসান- কাউন্সেলিং সাইকোলজিষ্ট

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ