কুবির প্রথম সমাবর্তনের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া আগামী সপ্তাহ থেকে

প্রকাশিতঃ ১:১০ অপরাহ্ণ, শনি, ২১ সেপ্টেম্বর ১৯

মাহমুদুল হাসান, কুবি প্রতিনিধি: পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন থাকে সমাবর্তনের মাধ্যমে উচ্চশিক্ষার মূল সনদপত্র হাতে পাওয়া। প্রতিষ্ঠার ১৩ বছর পার হলেও এ স্বপ্ন এখনও পূরণ হয়নি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) থেকে পাশ করা শিক্ষার্থীদের। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আগামী বছরের (২০২০) প্রথমদিকে সমাবর্তন আয়োজন করার। এ লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছে সমাবর্তন আয়োজক কমিটি।

তবে আশ্বাস থাকলেও সমাবর্তনকে ঘিরে দৃশ্যমান কোনো কার্যক্রম না থাকায় হতাশা বিরাজ করছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের মাঝে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাইফুর রহমান সুমন সমাবর্তন নিয়ে তার ভাবনা জানাতে গিয়ে  বলেন, ‘সমাবর্তনের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই অপেক্ষার প্রহর গুনছি। প্রথম ব্যাচ হিসেবে আমাদের অপেক্ষার সময়টাও বেশ দীর্ঘ হচ্ছে। আশা করছি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শীঘ্রই সমাবর্তন আয়োজনে দৃশ্যমান পদক্ষেপ নিবে।

আশ্বাস অনুযায়ী সমাবর্তনের আর মাত্র ৫ মাস বাকী। তবে এ নিয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো ধরনের দৃশ্যমান প্রস্তুতি নেই। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সমাবর্তন আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক ড. এ. কে. এম রায়হান উদ্দিন জানান, ‘সমাবর্তন আয়োজনের যত ধরনের প্রস্তুতি প্রয়োজন তা আমরা ধারাবাহিকভাবে গ্রহণ করছি। আগামী সপ্তাহেই রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবো বলে আমরা আশাবাদী। ইতোমধ্যেই মহামান্য রাষ্ট্রপতি বরাবর সময় চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়ে গেছে।

এছাড়াও তিনি আরো জানান, ‘ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে সমাবর্তন আয়োজনের পরিকল্পনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের। এ নিয়ে ২১ টি উপকমিটির দফায় দফায় সভা চলছে। শিক্ষার্থীদের মূল সনদপত্র তৈরির জন্য যাবতীয় উপকরণ ক্রয়ের নির্দেশনাও চলে এসেছে।

সমাবর্তনে অংশগ্রাহী এবং রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শুরুর সময় থেকে ২০১৯ সালের জুন মাস পর্যন্ত যেসব বিভাগের শিক্ষার্থী তাদের স্নাতক ফলাফল পেয়েছেন তারা রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সমাবর্তনে অংশ নিতে পারবেন। সমাবর্তনে রেজিস্ট্রেশনের ফি হতে পারে ৪ থেকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা। তবে পুরো বিষয়টি এখনও (এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত) চূড়ান্ত হয়নি। শীঘ্রই রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া, নির্ধারিত ফি-সহ বিস্তারিত জানানো হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘মহামান্য রাষ্ট্রপতি দেশের বাইরে থাকায় সমাবর্তন বিষয়ক কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণে ধীরগতি ছিলো এতোদিন। তবে এখন আর তেমন সমস্যা নেই। আগামী ফেব্রুয়ারিতে আমরা যেভাবেই হোক করতে পারবো বলে আশা রাখি।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের অক্টোবরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী ২০১৯ সালের ফ্রেব্রুয়ারি কিংবা অত্র বছরের শেষের দিকে সমাবর্তন আয়োজনের আশ্বাস দিয়েছিলেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ