ক্রিকেটারদের ধর্মঘট দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র : বিসিবি সভাপতি

প্রকাশিতঃ ৭:৫৭ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ২২ অক্টোবর ১৯

স্পোর্টস ডেস্ক: পারিশ্রমিকসহ মোট ১১ ইস্যুতে ক্রিকেটারদের ডাকা ধর্মঘট ও খেলা বয়কটের সিদ্ধান্তকে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। যার অংশ হিসেবে ক্রিকেটাররা আন্দোলনে নেমেছে এবং ধর্মঘট ডেকে খেলা বন্ধ করে দিয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে বিসিবিতে এক সংবাদ সম্মেলনে নাজমুল হাসান পাপন এসব কথা বলেন।

ধর্মঘটে অংশ নেওয়া ক্রিকেটারদের এই পদক্ষেপের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, ওদের সবাই জানে না তারা কি করছে। তাদের বেশিরভাগই জানে না আসল পরিকল্পনা কি। মাত্র দুই-একজন নেতৃত্ব দিচ্ছে, বাকিরা পিছে এসেছে।’

বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘ক্যাম্প শুরু হচ্ছে, প্লেয়াররা যদি না যায়, আমার কিছু বলার নাই। আমরা যেকোনো সময় আলোচনার জন্য প্রস্তুত। যখনই কিছু করতে যাই, তখনই এমন কিছু করা, আমার মনে হয় এগুলো দাবি না। দাবি পেশ না করে খেলা বন্ধ করে, এটা হয় কিভাবে! বিসিবি নিয়ে যা কিছু বলুক, আমাকে নিয়ে যা কিছু বলুক, কিন্তু খেলা বন্ধ! তারা এখনো দাবি পেশ করে নাই, কারণ তারা জানে আমরা মেনে নিব, তাই তারা যোগাযোগ পর্যন্ত করে নাই। এগুলা একটা ষড়যন্ত্রের অংশ।’

তিনি জানান, ক্রিকেটারদের সঙ্গে এ প্রসঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না, ফোন কেটে দিচ্ছে। তারা আগে আমাদের কিছু জানায়নি। কিন্তু এখন তারা আসলো না কেন সেটা বুঝতেছি না। তারা আসুক। আপনাদের কি মনে হয়, এই দাবিগুলোর কোনোটা বিসিবি মানতে পারবে না। ওরা যা চেয়েছে আমরা দিয়ে গিয়েছি। আপনারা শুধু বলেন, এটার মধ্য দিয়ে দেশের ক্রিকেটের কি লাভ হচ্ছে।

ক্রিকেটারদের দাবিগুলো নিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন, প্লেয়াররা কি কি পায়! এতদিন ছিল না, কোন সমস্যা ছিল না, এখন আছে, এখন এমন দাবি কেন? প্লেয়ার ফি আমরা অনেক বেশি দিচ্ছি। অন্তত ২০ থেকে ২২টা দেশের চেয়ে বেশি দিচ্ছি। বাড়াতে হলে বলবে, এজন্য খেলা বন্ধ করে দেবে! ওরা যদি খেলতে চায়, ঘরোয়া আসরের সংখ্যা বাড়বে। ওরা খেলবে কিনা সেটা জিজ্ঞেস করেন। প্রিমিয়ার লীগ নিয়ে সমস্যা সমাধান হয়েছে। বাকিগুলো দেখছি, সেগুলোও ঠিক হয়ে যাবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ