গাড়িতে চালক ফোনে কথা বললেই আটক করার নির্দেশ

প্রকাশিতঃ ৪:১৯ অপরাহ্ণ, রবি, ৪ আগস্ট ১৯

গাড়ি চালানোর সময় যদি কোনো চালক মোবাইল ফোনে কথা বলেন তা হলে ওই চালককে আটক ও গাড়ি জব্দ করার জন্য ট্রাফিক বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া।

রোববার দুপুরে রাজধানীর কাকরাইল মোড়ে পথচারীর করণীয় শীর্ষক সচেতনতামূলক কর্মসূচি ক্যাশ কার্ডের মাধ্যমে ট্রাফিক প্রসিকিউশনের জরিমানা আদায় ব্যবস্থার উদ্বোধনকালে ডিএমপি কমিশনার এ কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, চলন্ত গাড়িতে চালক কথা বললে ড্রাইভিংয়ে মনোযোগ থাকে না। এ কারণেই অনেক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

সড়কের বাম লেন খালি রাখার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সড়কের বাম লেন খালি রাখবেন। কেউ বাম লেন দখল করে দাঁড়িয়ে থাকলে তাদের গাড়িও রেকারিংয়ে নিতে ট্রাফিক বিভাগকে নির্দেশ দেন কমিশনার।

তিনি বলেন, এখন থেকে ট্রাফিক প্রসিকিউশনের জরিমানার টাকার জন্য চালক ও গাড়ির কাগজপত্র জব্দ করা হবে না। জরিমানার টাকা এখন থেকে অন স্পটে যেকোনো ব্যাংকের ডেবিট, ক্রেডিট, ভিসা, ক্যাশ, বিকাশ, রকেট ও অন্যান্য কার্ড ব্যবহার করে পরিশোধ করতে পারবেন।

তিনি বলেন, এভাবে টাকা পরিশোধের ফলে চালক বা মালিক হয়রানি থেকে মুক্ত থাকবে। আগে এই টাকা আদায়কালে সীমাহীন অনিয়ম ছিল, দুর্নীতি হতো। দুই হাজার টাকা নেয়া হলেও অল্প টাকা সরকারি কোষাগারে জমা করা হতো। এখন সেটি আর হবে না। এর আগে ইউসিবিএলের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে হতো।

যেসব পথচারী হেডফোন কিংবা মোবাইল ফোন কানে ধরে রাস্তা পার হয়, বাচ্চা নিয়ে রোড ডিভাইডার পার হয়, রাস্তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে হাত দিয়ে ইশারায় গাড়ি থামানোর সংকেত দেয়, জেব্রাক্রসিং ব্যবহার করেন না; তাদের বিরুদ্ধেও এখন থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ