চীন থেকে বাংলাদেশি ছাত্রের দাবি: দূতাবাস তাদের খোঁজ নেয়নি

প্রকাশিতঃ ১:২৬ অপরাহ্ণ, রবি, ২৬ জানুয়ারি ২০

নিউজ ডেস্ক: কোন গাড়ি চলছে না, চীনে মহামারী আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস।গৃহবন্দী অবস্থায় রয়েছে চীনের জনগণ। প্রাণঘাতী এ ভাইরাস সংক্রমণে চীনে এখন পর্যন্ত ৫৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন প্রায় দেড় হাজার মানুষ। এছাড়া ১৬ টি শহর তালাবদ্ধ করে দিয়েছে চীন প্রশাসন।

চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বহু বাংলাদেশি শিক্ষার্থী লেখাপড়া করছেন। তারাও করোনাভাইরাস আতঙ্কে ভুগছেন।

হুবেই প্রদেশের যে উহান শহর থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে সেখানেই আটকা পড়েছেন অন্তত ৫০০ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী। অনেকেই দেশে ফেরার আকুতি জানিয়েছেন সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে।

তবে এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশ দূতাবাস শিক্ষার্থীদের কোনো খোঁজখবর নেয়নি বলে অভিযোগ করেছেন চীনের হুবেই ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রাকিবিল তূর্য (২৩)।

শনিবার নিজের ফেসবুক আইডিতে তিনি লেখেন, ‘বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে আমাদের খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে এমন নিউজ বাংলাদেশের মিডিয়াতে প্রচার করা হলেও এ খবর ভিত্তিহীন। আমাদের এখন পর্যন্ত কোনো প্রকার কোনো খোঁজ নেয়া হয়নি।

তূর্য আরও লেখেন, সম্প্রতি চায়নাতে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শহর উহানে আমি বাস করছি। এখানে আমরা প্রায় ৫০০ জনেরও অধিক বাংলাদেশি উহানের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যাচেলর, মাস্টার্স ও পিএইচডি প্রোগ্রামে অধ্যয়নরত।

তিনি বলেন, উহান থেকে বহির্গামী সব বাস-ট্রেন এবং বিমান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত অন্তত ২৫ জন মারা গেছে এবং ৬০০-এরও বেশি মানুষ এতে আক্রান্ত হয়েছে। আমরা চাইলেও এখন নিজ দেশে ফিরে যেতে পারছি না।-যুগান্তর

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ