চুয়াডাঙ্গায় ল্যাম্পি স্কিনে আক্রান্ত হচ্ছে গরু

প্রকাশিতঃ ৫:১৯ অপরাহ্ণ, শনি, ১৯ অক্টোবর ১৯

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গায় ভাইরাসজনিত ল্যাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে গরু। এই রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে জেলা জুড়ে।

ল্যাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত হলে গরুর পেটের নিচে পানি জমা, পা ফুলা ও সমস্ত শরীরের গুটি বের হচ্ছে। প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে বাংলাদেশে এ রোগ ২০১৯ সালে সর্ব প্রথম দেখা গিয়েছে গরুর। এ ভাইরাস জনিত রোগের কারণে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

প্রাণি সম্পদ অফিস সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালে বাংলাদেশ, ভারত ও চীনে সর্ব প্রথম গরুর ল্যাম্পি স্কিন রোগ দেখা যায়। বেশ কয়েক দিন ধরে ল্যাম্পি স্কিন রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলায়।

ভাইরাসজনিত রোগের কারণে জেলার গরুর খামারিরা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন পশু নিয়ে। গরুর শরীরে এ ভাইরাস ৬ মাস পর্যন্ত থাকতে পারে।

মশা ও মাছি থেকে এ রোগ গরুর শরীরে প্রবেশ করছে। গরু এ রোগে আক্রান্ত হলে খামারিরা দ্রুত পশু হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করাচ্ছেন।

প্রতিদিন খামরিরা হাসপাতালে তাদের গরুর চিকিৎসা করাতে আসছেন। প্রাণি সম্পদ অফিসের চিকিৎসকরা গরুর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিচ্ছেন।

খামরিদের বলছেন এ রোগ হলে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আবার অনেকে স্থানীয় পশু চিকিৎসকের নিকট থেকে গরুর চিকিৎসা করাচ্ছেন। যার কারণে গরু বেশি অসুস্থ্য হয়ে পড়ছেন।

ভাইরাসজনিত ল্যাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত হলে গরুর পা ফুলা, পেটের নিচে পানি জমা ও সমস্ত শরীরে গুটি বের হচ্ছে। যার কারণে গরু সহজে দুর্বল হয়ে পড়ছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. এ,এইচ,এম শামিমুজ্জামান জানান, গরুর এটি ভাইরাসজনিত রোগ। নিয়মিত চিকিৎসা করালে ভাল হয়ে যাবে। গরুর থাকার ঘরে মশারি দিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ল্যাম্পি স্কিন ভাইরাস রোগ নিয়ে খামরিদের আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। গরু খুব কম মারা যাবে। আক্রান্ত গরুগুলো আলাদা রাখাতে হবে। গোয়াল ঘরগুলো সব সময় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ