‘জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ফেলোশিপ’ পাচ্ছেন ইবির ৩৯ শিক্ষার্থী

প্রকাশিতঃ ৬:৩২ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৩০ জানুয়ারি ২০

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি : উচ্চশিক্ষায় গবেষণা সহায়তা প্রকল্প ‘জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ফেলোশিপ’ পাচ্ছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বিভিন্ন বিভাগের ৩৯ শিক্ষার্থী। সম্প্রতি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মো. রবিউল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, শিক্ষার্থী ছাড়াও ‘বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কর্মসূচি’ খাতে বিশেষ অবদানের জন্য ১১ জন শিক্ষকও প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর নির্বাচিত হয়েছেন।

মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী এ বছর ভৌতবিজ্ঞান, জীব ও চিকিৎসাবিজ্ঞান এবং খাদ্য ও কৃষিবিজ্ঞান এ ৩ ক্যাটাগরিতে ফেলোশিপ পাচ্ছেন দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৩ হাজার ২০০ জন গবেষক। এদের মধ্যে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৯ জন শিক্ষার্থী মনোনীত হয়েছেন।

এই ৩৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে ভৌতবিজ্ঞান ক্যাটাগরিতে ২৯ জন এবং জীব ও চিকিৎসা বিজ্ঞান ক্যাটাগরিতে ১০ জন ফেলোশিপ পাচ্ছেন। এছাড়া মন্ত্রণালয়ের ‘বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কর্মসূচি’ খাতে বিশেষ অবদানের জন্যেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ১১ জন শিক্ষক প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর নির্বাচিত হয়েছেন।

ফেলোশিপ পাওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে এমএসসি শিক্ষার্থী প্রতি ৫৪ হাজার টাকা, এমফিল গবেষক (১ম বর্ষ ৬৮ হাজার ৪০০ টাকা, ২য় বর্ষ ৯৯০০০ টাকা) এবং পিএইচডি গবেষক ৩ লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা পাবেন বলে মন্ত্রণালয়ের ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৭৭-৭৮ অর্থবছর থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়/গবেষণা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত/গবেষণারত এমএস, এমফিল, পিএইচডি পর্যায়ের শিক্ষার্থী ও গবেষকদের এই অনুদান প্রদান করে আসছে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রাণালয়।

সময় জার্নাল/আরইউটি/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ