টি-২০ অধিনায়ক বাবরকে নিয়ে ৫ বছরের শিশুর লেখা ভাইরাল

প্রকাশিতঃ ৩:০৯ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৩ এপ্রিল ২০

স্পোর্টস ডেস্ক : পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক বাবর আজমকে নিয়ে চিঠি লিখেছে পাঁচ বছর বয়সী এক শিশু। তার নাম অস্কার। সেটি নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছে ইংল্যান্ড কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব সোমারসেট। মুহূর্তেই পাক ব্যাটিং মায়েস্ত্রোকে নিয়ে ছোট্ট শিশুটির লেখা ভাইরাল হয়ে গেছে।

গেল বছর চোটে পড়ে ছুরি-কাঁচির নিচে যেতে হয় অস্কারকে। অস্ত্রোপচার শেষে তার সঙ্গে দেখা করেন বাবর। পরে সোমারসেটের হয়ে ভাইটালিটি ব্লাস্টে খেলেন তিনি।

অস্কার লিখেছে, বাবর আমার প্রিয় ক্রিকেটার। তিনি পাকিস্তানে জন্মগ্রহণ করেন। তার বয়স এখন ২৫ বছর।

সে জানিয়েছে, বাবর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সেরা ব্যাটসম্যান। তিনি পাকিস্তানের অধিনায়ক। আমি একদিন দেখেছি, উনি বড় ছক্কা হাঁকাতে পারেন।

ইংলিশ বংশোদ্ভূত ছেলেটি বলে, বাবর খুবই দয়ালু মানুষ। গেল বছর আমার পায়ে অপারেশন হয়। এর পর তার সঙ্গে দেখা করেছিলাম আমি। আমাকে অনেক স্নেহ-আদর দিয়েছেন।

এখন ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে এক নম্বর ব্যাটসম্যান বাবর। খুদে ভক্তের আবেগমাখা রচনা দেখে আপ্লুত তিনি। ফের তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা দিয়েছেন পাকিস্তানের এ মিডলঅর্ডার।

সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান লিখেছেন, হে অস্কার, এ ধরনের নোট লেখার জন্য তোমাকে অসামান্য ধন্যবাদ। তোমার জন্য আমি গর্বিত বেবি। তুমি রকস্টার, মনোযোগ দিয়ে পড়াশোনা কর এবং চ্যাম্পিয়নের মতো খেল। তোমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আমার তর সইছে না।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মতো ২০১৯ সালটা কুপার কাউন্টি গ্রাউন্ডে দারুণ কাটান বাবর। ওই মৌসুমে ভাইটালিটি ব্লাস্টে শীর্ষ রান সংগ্রহকারীদের একজন ছিলেন তিনি। টুর্নামেন্টে ৫২.৫৪ গড়ে ৫৭৮ রান করেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

মাত্র ১৩ ইনিংসে এ রান করেন বাবর। পথিমধ্যে এক সেঞ্চুরি ও চার হাফসেঞ্চুরি হাঁকান তিনি। সর্বসাকল্যে তার উইলো থেকে আসে ৬০টি চার ও ১৪টি ছক্কা।

তথ্যসূত্র: ক্রিকেট পাকিস্তান ডটকম।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ