ঠাকুরগাঁওয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিতঃ ৩:৪৫ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৩ নভেম্বর ১৯

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার সালন্দর ইউনিয়নের আরাজি কৃষ্টপুর মুন্সিপাড়া এলাকার ঠাকুরগাঁও-গড়েয়া সড়কে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে এলাকার শতাধিক নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে গত ১১ নভেম্বর স্থানীয়রা ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, সালন্দর ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের নারী ইউপি সদস্য লতিফা বেগম, রহিমানপুর ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ ফাহিম উদ্দিন, আরাজি সিংপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন জেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল জব্বার প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যান মাহাবুব আলম মুকুল সহ স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় আরাজি কৃষ্টপুর মুন্সিপাড়া এলাকায় দেহ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে আজিমা খাতুন সাথী ও তার মেয়ে পাখি আক্তার। এতে করে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। এছাড়াও সাথী ও তার মেয়ে পাখি ওই এলাকায় নিয়মিত মাদক ব্যবসা ও জুয়ার আসর পরিচালনা করছে। তাই দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ ও সাথী ও পাখিকে এলাকা থেকে উচ্ছেদের দাবি জানান বক্তারা।

এর আগে শহরের শান্তিনগর, খালপাড়া ও সালন্দর ইউনিয়নের বাংলাদেশ বেতারের পাশে দেহ ব্যবসা ও মাদক ব্যবসা পরিচালনা করতেন আজিমা খাতুন সাথী ও তার মেয়ে পাখি আক্তার। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের ওই এলাকা থেকে উচ্ছেদ করে দেয়।

আরাজি কৃষ্টপুর মুন্সিপাড়া এলাকার বাসিন্দা খায়রুল আলম বলেন, প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় সাথী ও পাখি এলাকায় দেহ ব্যবসা চালিয়ে আসছে। বাঁধা দিতে গেলে তারা স্থানীয়দের লাঞ্ছিত করে। তাই প্রশাসনের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি এলাকায় অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধের জন্য।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির বলেন, কেউ যদি অসামাজিক কার্যকলাপ ও মাদক ব্যবসা করে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সেজন্য স্থানীয়দের সহযোগিতা চান তিনি।

ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, এলাকায় অসামাজিক কার্যকলাপের প্রমাণ পাওয়া গেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

চেয়ারম্যান মাহবুব আলম মুকুল বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হচ্ছে তা সত্য নয়।
সময় জার্নাল/ সুজন

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ