পুলিশি বাধায় শিক্ষকদের সমাবেশ পণ্ড

প্রকাশিতঃ ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ, বুধ, ২৩ অক্টোবর ১৯

নিউজ ডেস্ক: গ্রেড পরিবর্তন ও বেতন বৃদ্ধির দাবিতে পূর্বঘোষণা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহাসমাবেশে হওয়ার কথা থাকলেও পুলিশি বাধার কারণে শিক্ষকরা সেখানে সমবেত হতে পারছেন না।

বুধবার সকাল থেকে শহীদ মিনারের চৌহদ্দিসহ আশপাশের রাস্তায় বিপুল সংখ্যক পুলিশসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন।

মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে কাউকে শহীদ মিনারের দিকে যেতে দেয়া হচ্ছে না। কেউ যেতে চাইলেই পুলিশ তাদেরকে সেখান থেকে সরে যাওয়ার নির্দেশ কিংবা সরিয়ে দিচ্ছেন। সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন জেলার শিক্ষকরা বিছিন্নভাবে শহীদ মিনারের সামনে আসলেও কেউ শহীদ মিনারে অবস্থান করতে পারছেন না বলে অভিযোগ করছেন।

অন্যদিকে প্রাথমিক শিক্ষা ঐক্য পরিষদ মহাসমাবেশে যোগ না দিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ছুটির দিনে কর্মস্থলে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। সোমবার (২১ অক্টোবর) ডিপিই’র মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদির স্বাক্ষরিত এমন নির্দেশনা জারি করা হয়।

 

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘বুধবার (২৩ অক্টোবর) পবিত্র আখেরি চাহার শোম্বার ছুটির দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষক সংগঠন বিভিন্ন দাবি নিয়ে ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারেন বলে জানা গেছে। এ কারণে সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এ দিন ছুটি উপলক্ষে কর্মস্থল ত্যাগের অনুমতি না দিতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

তবে প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ ছামছুদ্দীন মাসুদ জানিয়েছেন, গ্রেড পরিবর্তন ও বেতন বৃদ্ধির দাবিতে পূর্বঘোষণা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহাসমাবেশে যোগ দিতে প্রায় ১পৌনে তিন লাখ শিক্ষক অংশগ্রহণ করছেন। আরও শিক্ষক এই সমাবেশে যোগ দিতে পথে আছেন। মন্ত্রণালয় বিদ্যালয় ত্যাগের নির্দেশনা দিলেও বুধবার সরকারি ছুটি, এ দিন সব বিদ্যালয় বন্ধ থাকবে।

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া থেকে আগত এক শিক্ষিকা বলেন, প্রাথমিক শিক্ষকরা প্রধান শিক্ষকদের ১০তম গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকরা ১১তম গ্রেডের দাবিতে মহাসমাবেশ ডেকেছেন। গত বছরর আমরণ অনশনকালে তাদের দাবি অচিরেই পূরণ করা হবে বলা হলেও বাস্তবে তা ঘটেনি। তাই মহাসমাবেশে যোগ দিতে এসেছি। কিন্তু পুলিশ সদস্যরা আমাদের শহীদ মিনারে যেতে দিচ্ছে না।

এদিকে শিক্ষকদের সমাবেশকে কেন্দ্র করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিভিন্ন প্রবেশদ্বার আজও বন্ধ করে রাখা হয়।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ