দিল্লি অবরোধ, মঙ্গলবার ভারত জুড়ে বনধের ডাক কৃষকদের

প্রকাশিতঃ ৮:৩১ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৪ ডিসেম্বর ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আগামী মঙ্গলবার দেশ জুড়ে বনধের (হরতাল) ডাক দিয়েছে ভারতের আন্দোলনরত কৃষকরা। দিল্লিতে প্রবেশের সব পথও তারা বন্ধ করে দেবেন বলে জানিয়েছেন। ৮ তারিখের ধর্মঘটের অংশ হিসেবে তারা দেশটির সব হাইওয়েতে থাকা টোল আদায়ের ফটকগুলোও দখল করে নেবেন বলে ঘোষণা। নতুন কৃষি আইন নিয়ে সরকারের সঙ্গে বিরাজমান অচলাবস্থার মধ্যে তারা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খবর এনডিটিভির।

আন্দোলনকারী কৃষকদের অন্যতম নেতা হরিদার সিং লাখোয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন,`আমাদের আন্দোলনে আরও অনেক লোক যোগ দেবে।’

কৃষকরা বলেছেন, তারা তিনটি আইন প্রত্যাহার করতে বলেছেন। কারণ, তাদের মতে, সেগুলো বাস্তবায়িত হলে তারা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর করুণার পাত্র হয়ে পড়বেন। তাদের জিম্মি করে ফেলা হবে। তারা প্রতিনিয়ত তাদের কাছে প্রতারণার শিকার হবেন।

দেশব্যাপী বনধের ঘোষণা দিয়ে কৃষকরা শনিবার সরকারের কুশপুত্তলিকা দাহ করবেন বলেও জানান।

সরকার সব সময় কৃষকদের কাছ থেকে ফসল কিনে নিয়ে জমা করে রাখত। কৃষকরা তাতে নগদ মূল্য পেয়ে যেত। কিন্তু সম্প্রতি সরকার ফসল না কিনে ক্রয়ের ব্যাপারটা বেসরকারি খাতে ছেড়ে দেয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তারা। তাদের ভয়, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো ক্রযের ব্যাপারে তাদের নানাধরনের হয়রানি করবে। তাই তারা সরকারের আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হয়ে ওঠেন। তারা দিল্লি অভিমুখে যাত্রা শুরু করলে পথে পুলিশ তাদের শহরে ঢুকতে বাধা দেয়। তাদের ওপর নৃশংসতা চালায়। পরে অবশ্য শহরের বাইরে শান্তিপূর্ণ ভাবে অবস্থান নেয়ার অনুমতি দেয়া হয়।

করোনাভাইরাসের মধ্যেও কয়েক হাজার আন্দোলনকারী শহরে বাইরে সমবেত হয়। কৃষকদের অভিযোগ, সরকার পুরনো নীতি পাল্টে নতুন আইন করে তাদের বিপদে ফেলার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।