দেশে আগুন জ্বালাচ্ছেন অমিত শাহ, অভিযোগ মমতার

প্রকাশিতঃ ১:৩০ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১৯ ডিসেম্বর ১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দেশে আগুন ‘জ্বালানো’র অভিযোগ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের তীব্র সমালোচনা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অমিত শাহের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনি দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। আপনি শুধু আপনার দলের (বিজেপি) সভাপতি নন। দেশে শান্তির পরিবেশ ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করুন। আগুন জ্বালানো নয়, আগুন নেভানোই আপনার কাজ।

বিজেপি সরকারের নয়া নাগরিকত্ব আইন এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি) বিরুদ্ধে তৃতীয় দিনের বিক্ষোভে বুধবার মমতা এসব কথা বলেন।

সিএবি সংসদে পাশ হওয়ার পরেই মমতা ঘোষণা করেন উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতা এবং হাওড়াজড়ে তিন দিন মহামিছিল করবে তৃণমূল। কথা মতো সোমবার শহরের রেড রোড থেকে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি পর্যন্ত প্রায় চার কিলোমিটার পদযাত্রা করেন তিনি। সঙ্গে ছিল বিশাল মিছিল।

মঙ্গলবারও দুপুর ১টা নাগাদ যাদবপুরের ৮-বি বাসস্ট্যান্ড থেকে মিছিল করে ভবানীপুরের যদুবাবুর বাজার পর্যন্ত যান। হাজার হাজার মানুষের সামনে সেখানেই তিনি বার্তা দেন- ‘পশ্চিমবঙ্গে নয়া নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করতে দেব না’। একই স্লোগান নিয়ে বুধবার দলের নেতা-কর্মী-সমর্থকসহ সর্বস্তরের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় দিনের মতো পথে নামেন তিনি।

এদিন হাওড়া ময়দান শুরু হয়ে ব্রেবোর্ন রোড, টি-বোর্ড হয়ে মিছিলের গন্তব্য ধর্মতলার ডোরিনা ক্রসিং। বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টায় রানি রাসমণি রোডে এবং শুক্রবার দুপুর তিনটায় পার্ক সার্কাসে নয়া নাগরিক আইন বিরোধি সভা করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন মমতা।

সংসদে সিএএ পাশ হওয়ার পর থেকে পশ্চিমবঙ্গসহ রাজ্যের বিভিন্ন এলাকার পরিস্থিতি উত্তপ্ত। এই অবস্থাতেও মানুষের ‘ক্ষোভ’ প্রশমনের চেষ্টা না করে অমিত শাহ সেই ক্ষোভে ঘৃতাহুতি দেওয়ার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ তোলেন মমতা।

তার প্রশ্ন, দেশ জ্বলছে। এই অবস্থাতেও কেন আপনি বলছেন, এনআরসি হবেই হবে? কেন বলছেন, আধার কার্ড চলবে না? যদি আধার কোনও কাজেই না লাগে, তা হলে ফোনের সঙ্গে, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে কেন জুড়েছিলেন এই কার্ড?

বিজেপিকে কটাক্ষ করে মমতা আরও বলেন, যে ভোটার কার্ড দেখিয়ে মানুষ আপনাকে ভোট দিয়ে জিতিয়েছে, এখন সেই পরিচয়পত্র না চললে কি বিজেপির মাদুলি চলবে?

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ