দেশে করোনা ভাইরাসের রোগী নেই, তবে সতর্ক থাকতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ২:৫৯ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৩০ জানুয়ারি ২০

সময় জার্নাল ডেস্ক: বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের কোনো রোগী নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেছেন, এ দেশে এখনও করোনা ভাইরাসের রোগী পাওয়া যায়নি। তবে এই ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ফোরাম ২০২০-এর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকার প্রস্তুত জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের বিমানবন্দরগুলোতে স্ক্যানার বসানো হয়েছে। বিভিন্ন হাসপাতালে করোনা ভাইরাস চিকিৎসায় আইসোলেশন ওয়ার্ড করা হয়েছে। রাজধানী থেকে শুরু করে জেলা শহরের হাসপাতালগুলোতে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এর উদ্দেশ্য হলো– করোনা ভাইরাসের রোগী পাওয়া গেলে তাকে যেন দ্রুত চিকিৎসা দেয়া হয়।

চীন থেকে আসা যাত্রীদের বিষয়ে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, চীন থেকে যেসব ফ্লাইট বাংলাদেশে আসছে, সেসব যাত্রীর দিকে আমরা লক্ষ্য রাখছি। এসব যাত্রীকে বিমানবন্দরেই স্ক্যানিং করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তাদের একটি ফরম পূরণ করানো হচ্ছে এবং তাদের কার্ড রাখা হচ্ছে। যাতে পরে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়।

তিনি আরও বলেন, চীনারা বাংলাদেশের যেসব প্রকল্পে কাজ করছেন, সেখানেও আমরা বিশেষ নজর রেখেছি। সেখানেও আমাদের নির্দেশনা পাঠিয়েছি। কারণ চীনাদের অনেকেই নতুন বছরে নিজ দেশে গেছে। তারা আবার বাংলাদেশে আসবেন। সুতরাং বিদেশ থেকে যারা ফিরে আসছেন, তাদের প্রতি আমাদের বিশেষ নজর রয়েছে।

করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা নিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, দোয়া করি এই ভাইরাস যেন আমাদের দেশে না আসে। যদি কোনো কারণে চলে আসে, তবে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কারণ এই ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

চীনে যেতে নিরুৎসাহিত করে মন্ত্রী বলেন, প্রয়োজন না থাকলে এখন চায়নাতে না যাওয়াই ভালো। একই সঙ্গে চায়না থেকেও আমাদের দেশে আসতে এ মুহূর্তে আমরা নিরুৎসাহিত করছি। তবে এখনও কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়নি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ