দৈনিক সংগ্রামের অফিস ভাংচুর করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ

প্রকাশিতঃ ৯:১৭ অপরাহ্ণ, শুক্র, ১৩ ডিসেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাঁসি কার্যকর হওয়া আবদুল কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ বলার প্রতিবাদে দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকা অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

শুক্রবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে রাজধানীর মগবাজার ওয়্যারলেস এলাকায় পত্রিকাটির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছে সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এসময় পত্রিকাটির সম্পাদক আবুল আসাদকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে। পত্রিকা অফিসের ভেতরে ভাঙচুরও করা হয়েছে। বিক্ষোভ ও প্রতিবাদের একপর্যায়ে দৈনিক সংগ্রামের বেশ কয়েকটি কপি আগুনে পোড়ানো হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় কোনো মামলা দায়ের হয়নি।

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল জানিয়েছেন, ‘যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লাকে শহীদ বলার মাধ্যমে তারা দেশের শহীদদের অবমাননা করেছে। আদালত অবমাননা করেছে। দেশের সার্বভৌমত্বে আঘাত করেছে। আমরা চাই, সরকারিভাবে পত্রিকাটি বন্ধ করে দেওয়া হোক। আমরা পত্রিকাটির প্রধান গেটে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছি।’

পত্রিকার সম্পাদক আবুল আসাদকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাহমুদ জানান, ‘বিজয়ের মাসে একজন রাজাকার, দেশদ্রোহী কাদের মোল্লাকে সংগ্রাম পত্রিকা শহীদ অভিহিত করে সংবাদ প্রকাশ করেছে। আমরা এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে এখানে এসেছি। একই কাজের জন্য পত্রিকার সম্পাদককে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।’

এদিকে কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ বলা গর্হিত এবং রাষ্ট্রবিরোধী কাজ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান। এজন্য দৈনিক সংগ্রামকে জবাবদিহি করতে হবে বলেও হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটা অবশ্যই গর্হিত এবং রাষ্ট্রবিরোধী সংবাদ। আমরা এই সংবাদ প্রত্যাখ্যান করি, এটি কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। এমন সংবাদের তীব্র বিরোধিতা করছি। দৈনিক সংগ্রামকে এর দায় নিতে হবে এবং জবাবদিহির মুখোমুখি করা হবে। তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ স্পেন সফর থেকে ফিরলে করণীয় এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

নির্বাচন কমিশন থেকে নিবন্ধন হারানো রাজনৈতিক সংগঠন জামায়াতের মুখপত্র হিসেবে পরিচিত এ জাতীয় দৈনিকে শুক্রবার প্রকাশিত পত্রিকার প্রথম পৃষ্ঠায় ‘শহীদ কাদের মোল্লার ৬ষ্ঠ শাহাদাত বার্ষিকী আজ’ শিরোনামে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘আজ ১২ই ডিসেম্বর শহীদ কাদের মোল্লার ৬ষ্ঠ শাহাদাত বার্ষিকী। ২০১৩ সালের এই দিনে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর করে সরকার। জাতিসংঘের মহাসচিব থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব, মানবাধিকার সংগঠনের অনুরোধ উপেক্ষা করেই ফাঁসি কার্যকর করা হয়।’’

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ