নোয়াখালীর হ্যান্ডস্যানিটাইজার যোদ্ধা তারেক মাসুদ

প্রকাশিতঃ ৫:৫৪ অপরাহ্ণ, সোম, ৩০ মার্চ ২০

মো. আব্দুল্যাহ রানা, নোয়াখালী : করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে নোয়াখালীসহ একাধিক জেলায় হ্যান্ডস্যানিটাইজার তৈরী করে ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন জেলার সুবর্ণচর উপজেলার সন্তান আব্দুল্যাহ আল মাসুদ তারেক। সে স্ট্যাট ইউনিভার্সিটির ফার্মেসী বিভাগে অধ্যয়নরত।

“আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হই” স্লোগানকে সামনে রেখে অসহায়, দুস্থ এবং সুবিধা বঞ্চিত মানুষের করোনার ভয়াল থাবা থেকে বাঁচাতে ইতিমধ্যে তিনি নোয়াখালী পৌরসভা, চৌমুহনী পৌরসভা, সেনবাগ এবং ফেনীর প্রায় ১ লাখ মানুষের জন্য এই হ্যান্ডস্যানিটাইজার তৈরী করেন।

এই হ্যান্ডস্যানিটাইজার পৌরসভার মেয়রগণ বিনামূল্য জনসাধারণের মাঝে বিতরণ করেন। সরবরাহকৃত বেশিরভাগ স্যানিটাইজারের কেমিষ্ট হিসেবে কাজ করেছেন তারেক মাসুদ। ক্যামিকেল সংগ্রহ, প্যাকেজিং এবং মাঠ পর্যায়ে পৌঁছানোসহ যাবতীয় সকল কাজের মূল দায়িত্ব পালন করেন তারেক মাসুদ।

এমন ঝুঁকিপূর্ণ সময়ে নিজের কথা না ভেবে অসহায় মানুষের সেবাই দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তারেক মাসুদ। পাশাপাশি তিনি ভাইরাস সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন এলাকায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের নিয়ে হাট বাজারে গিয়ে জীবাণুনাশক স্প্রে দিয়ে হাত ধোয়ান।

তার এই উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তারেক মাসুদ বলেন, “আমরা সবাই মানুষ একদিন সবাইকে চলে যেতে হবে না ফেরার দেশে। তাই এমন কিছু কাজ করে যেতে চাই যাতে সাধারণ মানুষ উপকৃত হয়, আমি চাই সারা বাংলাদেশের মানুষ নিরাপদ থাকুক, সবাই যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে এলে করোনা মোকাবেলা সম্বব হবে, যদিও এখনো নিম্ন আয়ের মানুষগুলো সচেতন নয় তাই তাদের সচেতনতা বাড়ানো প্রয়োজন, আমরা চেষ্টা করছি সুবিধা বঞ্চিত মানুষকে হ্যান্ডস্যানিটাইজার ব্যবহারের উৎসাহিত এবং সচেতন করতে। সবাই যদি সচেতন হয় তাহলে আমরা ভয়াবহ চলমান করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে পারবো”।

প্রসঙ্গত, আব্দুল্যাহ আল মাসুদ তারেক ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ