পদযাত্রায় পদত্যাগ দাবি

প্রকাশিতঃ ৭:১২ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ১৫ অক্টোবর ১৯

জাবি করেসপন্ডেন্ট: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে অপসারণের দাবিতে আবারও আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা পদত্যাগের দাবিতে পদযাত্রা করেন।

পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দুপুর ১ টায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে থেকে পদযাত্রা শুরু করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে সমাবেশের মধ্যদিয়ে পদযাত্রাটি শেষ হয়।

সমাবেশে বক্তারা উপাচর্যকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ক্যান্সার আখ্যা দিয়ে পূজার ছুটি শেষে এই আন্দোলন আরও কঠোর হওয়ার হুশিয়ারি দেন আন্দোলনকরীরা। এতে বিশ্ববিদ্যালয় অচল হয়ে পড়লে এর দায় প্রশাসনকে নিতে হবে বলে জানান তারা।

আন্দোলনের মুখপাত্র অধ্যাপক রাইয়ান রাইন বলেন, আমরা আচার্যের কাছে চিঠি দিয়েছি উপাচার্যের অপসারেনের দাবিতে, কিন্তু দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে মাননীয় আচার্য কোন ব্যাবস্থা নেননি। আপনারা দেখেছেন আমরা যখন মাননীয় আচার্যের আছে চিঠি দিয়েছি তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ বিভাগ এর বিরুদ্ধে উত্তর দেয়। আমরা বলতে চাই বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ বিভাগের কাজ কি? উপাচার্যের দুর্নীতির চাপাই গাওয়া তাদের কাজ হতে পারে না।

সমাবেশে আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক জাবি ছাত্র ফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) সভাপতি মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, উপাচার্যের সীমাহীন দুর্নীতি বিশ্ববিদ্যালয়কে কলুষিত করেছে। ছাত্রলীগের একজন নেতা স্বীকার করেছেন তাকে উপাচার্য ২৫ লাখ টাকা ঈদ সালামি দিয়েছেন। আমরা এমন দুর্নীতিবাজ এবং অথর্ব উপাচার্যের অপসারণের জন্য রাষ্ট্রের কাছে আহ্বান জানাচ্ছি। দুর্নীতির বিরুদ্ধে এ আন্দোলন আরও কঠোর হবে। এতে বিশ্ববিদ্যালয় যদি অচল হয়ে যায় এর দায় প্রশাসনকে নিতে হবে।

ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সদস্য রাকিবুল রনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকে জানে উপাচার্যের স্বামী ও পুত্রের মধ্যস্থতায় উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা লেনদেন হয়েছে। এ বিষয়টি ছাত্রলীগের একাধিক নেতা স্বীকারও করেছে। সালামির নামে কোটি কোটি টাকা লেনদেন করা হয়েছে। প্রকাশ্যে প্রমাণিত দুর্নীতিবাজ উপাচার্যকে অপসারণ করতে হবে। এজন্য আমরা সরকারের কাছে দাবি জানায়, এরকম দুর্নীতিবাজ উপাচার্যের হাত থেকে জাহাঙ্গীরনগরকে রক্ষা করুন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ