পদ্মা সেতুর ১৭তম স্প্যান বসবে আজ

প্রকাশিতঃ ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ, মঙ্গল, ২৬ নভেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: পদ্মা সেতুর ১৭তম স্প্যান বসবে আজ মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর)। আবহাওয়াসহ সব কিছু ঠিক থাকলে স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটারের বেশি দৃশ্যমান হবে।

জানা গেছে, শরীয়তপুর জেলার জাজিরা প্রান্তে সকাল থেকেই শুরু হবে ২২ ও ২৩ নম্বর পিলারে স্প্যান বসানোর কার্যক্রম। সব কিছু অনুকূলে থাকলে বেলা ১টার মধ্যেই স্প্যান বসানো সম্ভব হবে বলে আশাবাদী প্রকৌশলীরা।

প্রকল্প পরিচালক জানান, নদীর ড্রেজিং করে কাজ এগিয়ে নিতে হচ্ছে। এ কারণে প্রকল্পটি পিছিয়ে যাচ্ছে। সর্বশেষ পদ্মা সেতুর ১৬তম স্প্যানটি বসাতে খুব বেশি ঝামেলা পোহাতে হয়নি। কিন্তু ১৫তম স্প্যানটি বসাতে গিয়ে কিছু সমস্যার কারণে আট দিন সময় লেগেছিল। ক্রেনে তুলে নদীতে ভাসিয়ে রাখতে হয়েছিল স্প্যান।

রাত-দিন ড্রেজিং করে নদীর তলদেশের পলি সরাতে হয়েছে। বর্ষায় প্রায় সাড়ে তিন মাস কাজ বন্ধ রাখার পর নদীর স্রোত কমে আসায় অক্টোবর মাসে পরিকল্পনা ছিল তিন থেকে চারটি স্প্যান বসানোর। সেখানে মাত্র একটি স্প্যান বসানো গেছে।

১৬তম স্প্যান বসানোর প্রস্তুতি নেওয়ার পরেও ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে সব যন্ত্রপাতি সরিয়ে নিতে হয়।

এ দিকে, ১৬টি স্প্যান নদীতে বসানো আছে। চীন থেকে বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে আরও ১৭টি স্প্যান। যার মধ্যে ৫টি স্প্যান বসানোর জন্য পুরো প্রস্তুত আছে। স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ৪২টি পিলারের মধ্যে পুরোপুরি প্রস্তুত এখন ৩২টি।

১৯ নভেম্বর পদ্মা সেতুর ১৬ ও ১৭ নম্বর পিলারের ওপর ১৬তম স্প্যান বসে। সাত দিনের মাথায় বসতে চলেছে এই ১৭তম স্প্যান।

জানা যায়, ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ২৯ তারিখে সেতুর ১ম স্প্যান, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয়, ১০ মার্চ তৃতীয়, ১৩ এপ্রিল ৪র্থ, ২৯ জুন ৫ম, ২০১৯ সালে ২৩ জানুয়ারি ৬ষ্ঠ, ২০ ফেব্রুয়ারি ৭ম, ২০ মার্চ ৮ম, ১৮ এপ্রিল ৯ম স্প্যান বসানো হয়।

পদ্মা সেতুর পিলারের ওপর বসা প্রতিটি স্পেনের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। ৪২টি পিলারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে সবকটি পিলার দৃশ্যমান হয়েছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ