পর্যবেক্ষক নিয়োগে দূতাবাসগুলোর বিরুদ্ধে আইন ভঙ্গের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৭:২৪ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৩১ জানুয়ারি ২০

নিউজ ডেস্ক: ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি) নির্বাচনের ভোট গ্রহণ পর্যবেক্ষণে পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে বিভিন্ন বিদেশী দূতাবাস। তবে এসব পর্যবেক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে তারা আইন ভঙ্গ করেছেন বলে অভিযোগ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

আজ শুক্রবার বিমানবন্দরে করোনা ভাইরাস নিয়ে এক বৈঠকের পরে তিনি সাংবাদিকদের এই কথা বলেন।

বাংলাদেশিরা কীভাবে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক হলো এটি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটি আমি জানি না। তবে আমরা মনে করি এখানে যেসব বিদেশি সংস্থা আছে বা দূতাবাস আছে তারা তাদের কোড অফ কনডাক্ট জানে। আইন মতে, আমাদের দেশে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক যারা হন তারা কেউ বাংলাদেশি নাগরিক হতে পারেন না। আন্তর্জাতিক নির্বাচন পর্যবেক্ষককে অবশ্যই অবাংলাদেশি হতে হবে। কিন্তু দুঃখজনকভাবে এখানে বিদেশি দূতাবাসগুলো তাদের বাংলাদেশি কর্মচারীদের আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে এবং আইনের ভঙ্গ হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের আইন অনুযায়ী আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক বিদেশি নাগরিক হতে হবে। তারা তাদের নাগরিককে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক বানাক আমাদের আপত্তি নেই। আমাদের দেশে আভ্যন্তরীণ পর্যবেক্ষক আছে। সেটাও যদি তারা বলে তাহলে কোনও সমস্যা নাই। যেকোনও দূতাবাস যেকোনও বড় রাজনৈতিক দল বা প্রার্থীর সঙ্গে আলাপ করতে পারে। কিন্তু তারা আমাদের সিস্টেম ভঙ্গ করতে পারে না, তারা আমাদের নিয়ম ভঙ্গ করতে পারে না। আমরা এটাই বলেছি। তাদের দায়বদ্ধতা থাকা উচিত।’

এটি থামানো যায় কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটি নির্বাচন কমিশন জানে। মিশনগুলোকেও দায়িত্ব নিতে হবে। তারা যেহেতু আইন জানে, তাদের বলে দেওয়া হয়েছে। সুতরাং তাদের যে বাংলাদেশি কর্মচারী আছে তাদের মধ্যে যাদের তারা আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক বানিয়েছে, তাদের কোনও সেন্টারে পাঠানো উচিত হবে না।’

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ