পলাশী ষড়যন্ত্রের পুনরাবৃত্তি ১৫ আগস্ট: সেতুমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ৬:০০ অপরাহ্ণ, বুধ, ২৮ আগস্ট ১৯

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনিদের বিদেশ যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান।
বুধবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) জাতীয় শোক দিবসের আলোচনাসভায় তিনি এ কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আগস্ট এলেই বিএনপি দিশেহারা হয়ে যায়। তবে তারা যতই দায় এড়ানোর চেষ্টা করুক না কেন, জনতার আদালতে প্রমাণ হয়ে গেছে ১৫ ও ২১ আগস্টের হোতা বিএনপি।
পলাশীর ষড়যন্ত্রের পুনরাবৃত্তি ঘটেছে পচাত্তরের ১৫ আগস্ট এমন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, পঁচাত্তরে ইয়ার লতিফ ছিল, মীর জাফর আলী খান ছিল, সেনাপতি রায়দুর্লভ ছিল। পঁচাত্তরে পলাশীর ষড়যন্ত্রের পুনরাবৃত্তি ঘটেছিল।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধুর রক্তে ভিজে আছে বাংলার মাটি। বন্দুকঘেরা পরিবেশে টুঙ্গিপাড়া গ্রামে বঙ্গবন্ধুর জানাজা পড়তে অনুমতি দেয়া হয়েছিল। ইতিহাসের মহানায়ক অথচ ৫৭০ সাবান জুটেছিল তার দাফনের কাজে। কোনোরকমে মাটিচাপা দিয়েছিল তারা।
ষড়যন্ত্রকারীরা ভেবেছিল, বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলা যাবে। কিন্তু সেটি সম্ভব হয়নি।
জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিদেশে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন মন্তব্য করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘মনে করেছিল এ মুজিবকে বাংলাদেশ ভুলে যাবে। সেই খুনিদের তারা নিরাপদে বিদেশে যাওয়ার সুযোগ করে দিল-কে? তিনি সেনাপতি রায়দুর্লভ, সেনাপতি ইয়ার লতিফের প্রেতাত্মা সেনাপতি জিয়াউর রহমান।’
বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, রাজনীতিতে ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নেয়া ছাড়া বিএনপির আর কোনো পথ খোলা নেই। তারা সবক্ষেত্রে ব্যর্থ।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিদেশি কিছু এনজিওর সঙ্গে ষড়যন্ত্র করেছে বিএনপি। এটিকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে বাংলাদেশকে বেকায়দায় ফেলার চেষ্টা করছে।’

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ