প্রথমবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালের হাতছানি যুবাদের

প্রকাশিতঃ ৭:৩৭ অপরাহ্ণ, বুধ, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০

স্পোর্টস ডেস্ক : দারুণ সুযোগ ছিল ঢাকার মাটিতে। চার বছর আগে মেহেদি হাসান মিরাজদের হাতছানি দিয়েছিল যুব বিশ্বকাপের ফাইনাল। কিন্তু ক্যারিবীয়দের কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল সেমিতে। এবার সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে শিরোপামঞ্চ ডাকছে আকবর আলীদের।

প্রথমবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলার স্বপ্ন নিয়ে বাংলাদেশের যুবারা বৃহস্পতিবার নামছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। আশার পালে হাওয়া লাগার বড় কারণ, কিউইদের যুব দলটিকে চার মাস আগে তাদেরই মাটিতে ৪-১-এ হারিয়েছিল জুনিয়র টাইগাররা।

শুধু দ্বিপক্ষীয় সিরিজ নয়, এবারের যুব বিশ্বকাপেও নিউজিল্যান্ডের চেয়ে ভালো খেলে শেষ চারে উঠেছে বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্বে এক জয়ের ২ ও বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত ম্যাচের ১ মিলিয়ে মোট ৩ পয়েন্ট নিয়ে কোয়ার্টারে উঠেছিল কিউইরা; বিপরীতে দুই জয়ের ৪ আর বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত ম্যাচের ১ সহ মোট ৫ পয়েন্ট অর্জন ছিল বাংলাদেশের।

কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে পঞ্চাশতম ওভারের চতুর্থ বলে গিয়ে জয় পায় নিউজিল্যান্ড, আর স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০৪ রানের বিশাল ব্যবধানে হারায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশ দলের দারুণ এ সাফল্যযাত্রার মূলে ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তাপূর্ণ ব্যাটিং আর বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং। প্রতি দুই বছর পরপর হওয়া অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের এবারের আসরটি ১৩তম, বাংলাদেশের ১২তম।

আগের আসরগুলোর চেয়ে এবারের দলটিই বেশিদিন একসঙ্গে খেলছে। এরই মধ্যে দৃষ্টি কেড়েছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয়, ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম, অলরাউন্ডার শামিম হোসেন, স্পিনার রাকিবুল হাসান, ডানহাতি পেসার তানজিম হাসান সাকিব ও বাঁহাতি পেসার শরিফুল ইসলামরা। তাদের মধ্য তৌহিদ ২০১৮ যুব বিশ্বকাপও খেলেছেন, যেটিতে পঞ্চম হয়েছিল বাংলাদেশ। ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান ইতোমধ্যে যুব ওয়ানডের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের মালিক হিসেবে নামও লিখিয়ে ফেলেছেন।

দীর্ঘদিন ধরে অনূর্ধ্ব-১৯ দলটিকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন যিনি, সেই আকবর আলীও লোয়ার অর্ডারে ভালো কিছু ইনিংস খেলেছেন। স্পিনে আলোচিত হয়েছেন রাকিবুল, কোয়ার্টারে যার শিকার ছিল ৫ উইকেট। এর আগে গ্রুপ পর্বের হ্যাটট্রিকও করেছিলেন এ বাঁহাতি।

পচেফস্ট্রুমে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সেমির ম্যাচটি হবে সেনওয়েজ পার্কে। চলতি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ২৫ ম্যাচ হয়েছে এ মাঠে। দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যান্য মাঠের স্পিনাররা এখানে তুলনামূলক বেশি সুবিধা পেয়ে থাকেন। তার ওপর বৃহস্পতিবার আবহাওয়াও ভূমিকা রাখতে পারে।

বুধবার বিকেলে আবহাওয়া বার্তায় বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার পচেফস্ট্রুমে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা চল্লিশ শতাংশ। শুধু বৃহস্পতিবারই নয়, দক্ষিণ আফ্রিকার এ শহরে বৃষ্টির পূর্বাভাস আছে সোমবার পর্যন্তই। যদিও সেমি এবং ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে রাখা আছে। তবে প্রকৃতি নিয়ে ভেবে আপাতত লাভ নেই আকবর আলীদের।

দেশের মাটিতে যে সুযোগ হাতছাড়া হয়েছিল ২০১৬ সালে, সে সুযোগ এবার তারা দক্ষিণ আফ্রিকায় তৈরি করেছেন। এশিয়ার বাইরে বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভালো খেলতে না পারার প্রবণতা, সেটি তারা অনেকটাই কাটিয়ে উঠছেন। এবার পালা ইতিহাস গড়ার।

মিরাজ, সাইফুদ্দিন, নাজমুল শান্ত, সাইফ হাসানদের স্বপ্নভঙ্গের মঞ্চে দাঁড়িয়ে সাফল্যের হাসি হাসতে চান আকবর, তানজিম, তৌহিদ, শামিম, রাকিবুলরা।

বুধবার দলের পক্ষ থেকে অধিনায়ক আকবর আশাবাদই শোনালেন, ‘মানসিক ও শারীরিক দুই ধরনের প্রস্তুতিই আমরা ভালোভাবে নিয়েছি। এখন শুধু মাঠে দক্ষতা প্রয়োগ করার পালা। সেটা করতে পারলে ফলাফল আমাদের পক্ষে আসবে।’

যুব ক্রিকেটে দেশের হয়ে নতুন গল্প লিখতে খুব বেশি করা লাগবে না আকবরদের; নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা সর্বশেষ দ্বিপক্ষীয় সিরিজ আর চলমান টুর্নামেন্টে নিজেদের পেছনের ম্যাচগুলোর ধারাবাহিকতা ধরে রাখলেই হবে।

সময় জার্নাল/আরইউটি/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ