বাগেরহাটে খাদ্যসামগ্রী পেয়েছে ৬হাজার ৩শ শ্রমিক

প্রকাশিতঃ ৮:৩২ অপরাহ্ণ, শুক্র, ১ মে ২০

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট : প্রাণঘাতি করোনা পরিস্থিতিতে মহান মে দিবসে বাগেরহাট জেলার ২১ ট্রেড ইউনিয়নের ৬ হাজার ৩‘শ খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টায় বাগেরহাট পৌরসভা চত্বরে ট্রেড ইউনিয়নের কর্মকর্তাদের হাতে এই খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।

এসময় বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল ইসলাম, পৌর মেয়র খান হাবিবুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা ফিরোজুল ইসলাম,

বাগেরহাট জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি রেজাউর রহমান মন্টু, সাধারণ সম্পাদক খান আবুবকর সিদ্দিক, বাগেরহাট বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাকি তালুকদার, পৌর কাউন্সিলর আবুল হাশেম শিপনসহ শ্রমিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বাগেরহাট জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি রেজাউর রহমান মন্টু বলেন, প্রতিবছর আমরা জাকজমক পূর্নভাবে মে-দিবস পালন করতাম। এবার করোনা পরিস্থিতিতে তা করতে পারছি না। তবে এই দূর্যোগ মুহুর্তে প্রধানমন্ত্রী যে ৬ হাজার ৩‘শ শ্রমিককে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন। তাতে শ্রমিকরা কিছুটা হলেও স্বস্তি পেয়েছেন।

বাগেরহাট পৌর মেয়র খান হাবিবুর রহমান বলেন, পৌরসভাসহ বাগেরহাটের সকল ট্রেড ইউনিয়নের শ্রমিকদের মাঝে যে খাদ্য সমাগ্রী দেওয়া হয়েছে এ জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। পাশাপাশি পৌরসভার কোন পরিবারের যদি খাদ্য সহায়তা প্রয়োজন হয় তাহলে নির্ধারিত (০১৭২৬-২৭৮৪৮০) ফোন নাম্বারে কল করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ বলেন করোনা পরিস্থিতিতে মে দিবস উপলক্ষে জেলার ২১ টি ট্রেড ইউনিয়নের ৬ হাজার ৩‘শ শ্রমিককে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী হিসেবে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। এছাড়া স্থানীয় সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ও শ্রমিকদের অতিরিক্ত খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতি শুরু হওয়ার পর থেকে আমরা বাগেরহাটের কর্মহীণ মানুষের পাশে রয়েছি। এ পর্যন্ত প্রায় ১ লক্ষ ১০ হাজার মানুষকে আমরা খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এই সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ