ব্লাক বেঙ্গল গোট চুয়াডাঙ্গার ঐতিহ্য, বছরে আয় ২ হাজার কোটি টাকা

প্রকাশিতঃ ৫:৩৮ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৯ জানুয়ারি ২০

বিপুল আশরাফ, চুয়াডাঙ্গা : বিশ্ববিখ্যাত ব্লাক বেঙ্গল গোট চুয়াডাঙ্গার ঐতিহ্য । দেশের মধ্যে এই জাতের ছাগল বেশি পালন হওয়ায় চুয়াডাঙ্গার ব্রান্ড হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। রোগ বালাই কম ও লাভজনক হওয়ায় গ্রামঞ্চলের প্রায় প্রতিটি ঘরে ঘরে ছাগল পালন করে থাকে। আবার অনেকে ছাগলের খামার করে আজ স্বাবলম্বী।

প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের মতে, জেলায় ছাগলের মাংস ও চামড়া বিক্রি করে বছরে আয় হচ্ছে ২ হাজার কোটি টাকা। ফলে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ঘটছে এ জেলার মানুষের। এছাড়াও ছাগল উন্নয়ন খামার থাকায় সহজে উন্নত জাতের ছাগি ও পাঠা পাচ্ছে পালনকারীরা। এতে ব্লাক বেঙ্গল গোটের প্রজনন বৃদ্ধি করতে পারছে ।

দেশের সীমান্তবর্তী জেলা চুয়াডাঙ্গা। এই জেলার ব্রান্ড হচ্ছে ব্লাক বেঙ্গল গোট। উষ্ণ আবহাওয়া হওয়ার কারণে ছাগল পালনের উপযোগী স্থান চুয়াডাঙ্গা। যার কারণে গ্রামঞ্চলের প্রতিটি মানুষ ঘরে ঘরে দুই একটি ছাগল পালন করে থাকে। শীতকালে ঠাণ্ডাজনিত রোগ ছাড়া তেমন কোন রোগ বালাই হয় না ছাগলের।

জেলায় ব্লাক বেঙ্গল গোট, শংকর, যমুনাপাড়ী, বিটল, তোতামুখি, হরিয়ানা জাতের ছাগল পালন হয়ে থাকে। এর মধ্যে সিংহভাগই পালন হয় ব্লাক বেঙ্গল গোট। এই জাতের মাংস অত্যন্ত সুস্বাদু হওয়ায় দেশে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বছরে একটি মা ছাগল বছরে ২ বারে ৩/৪ টি বাচ্চা দেয়। অনেক খামারি ২০/৩০টি ছাগল পালন করে বছরে এক থেকে দেড় লাখ টাকা আয় করছে। যা দিয়ে তাদের সংসারের বেশিরভাগ চাহিদা মেটাতে পারছেন।

উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. শামিমুজ্জামান জানান, বিশ্ব বিখ্যাত ব্লাক বেঙ্গল গোট চুয়াডাঙ্গার ঐতিহ্য। এখানে প্রচুর পরিমাণে ছাগল পালন হয়ে থাকে। দরিদ্র কৃষক, বেকার যুবক ও যুবতিরা জীবিকা নির্বাহের পাশাপাশি জাতিকে পুষ্টি সরবরাহ করছে। জেলার ৪ উপজেলায় বছরে ৫লাখ ছাগল পালন হয়ে থাকে। এর থেকে ২৩ হাজার মেট্রিক মাংস উৎপাদন হয়। বর্তমানে বাজারে প্রতিকেজি ছাগলের মাংসের দাম প্রকার ভেদে ৬৫০/৭০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। যা থেকে আয় হয় প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা। এছাড়াও ছাগলের চামড়া বিক্রি করে মোটা অংকের টাকা আয় হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ব্যাপারিরা ব্লাক বেঙ্গল ছাগল কিনতে চুয়াডাঙ্গার মোকামে মোকামে ভীড় জমান।

ছাগল উন্নয়ন খামারের ব্যবস্থাপক আরমান আলী জানান, ১৯৯৬ সালে চুয়াডাঙ্গায় ছাগল উন্নয়ন খামার প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিবছর এ খামার থেকে খুলনা বিভাগের ১০টি জেলাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে নির্ধারিত মূল্যে পাঠা-ছাগি সরবরাহ করা হয়ে থাকে। প্রতিটি পাঠা ১ হাজার ২শ টাকা ও ছাগীর মূল্য নেয়া হয় ১ হাজার ৮শ টাকা। এ খামারে পাঠা-ছাগি মিলিয়ে প্রায় ১ হাজার ছাগল পালন করা হয়। এর ফলে ব্লাক বেঙ্গল জাত সম্প্রসারণ ও সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

সময় জার্নাল/আরইউটি

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ