ভাতে বিলম্ব, তাই হাতুড়ি পেটায় নানী খুন

প্রকাশিতঃ ১:০৩ পূর্বাহ্ণ, রবি, ২০ অক্টোবর ১৯

নরসিংদী প্রতিনিধি: হৃদয় উজাড় করা ভালোবাসার কৌটা নিজ হাতেই নিভিয়ে দেওয়া। গত ১৮ আক্টোবর রাতের ‍দিকে নরসিংদী সদর উপজেলার মাধবদী থানার কুড়েরপাড় গ্রামে নাতীকে ভাত দিতে দেরীহওয়ায় ক্ষুদ্বহয়ে নানীকে হাতুরীদিয়ে উপর্যপুড়ি মাথায় আঘাতকরে খুন করে।

মাধবদী থানার ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুতাহের দেওয়ান (ওসি) ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকারী নাতী পালাশ (২০) কে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। নিহত নানী বৃদ্বা ফুলমালার (৬০) এর লাশ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এব্যাপারে ওই এলাকার ইউপি সদস্য সেলিম মিয়া জানান, কুড়ের পার গ্রামের মৃত সুন্দর আলীর মেয়েকে র্পাশ্ববর্তী স্বর্রপনিগৈর গ্রামের ইসলামের নিকট বিয়েদেয়। বিয়ের পর সুন্দর আলীর মৃত্যুতে তার স্ত্রী বিধবা ফুলমালা মেয়ের ছেলে নাতী পলাশকে স্কুলে ভর্তিকরে লালন পালন করে আসছিলেন। এরই মধ্যে নাতী পলাশ এ এস সি পাশকরে একটি কলেজে লেখা পড়া করতে থাকে।

বৃহসপতিবার রাত সারে ১১ টায় নাতী পলাশ বাড়িতে এসে বৃদ্বা ফুলমালার (৬০) নিকট খাবার (ভাত)চায়। ফুলমালা খাবার দিতে দেরীহওয়ায় নানী -নাতীর মধ্যে ঝগড়াহয়। এক পর্য্যয়ে নাতীপলাশ হাতের কাছে থাকা হাতুরীদিয়ে নানীকে মাথায় এলোপাথারী আঘাতকরলে ঘটনাস্থলেই নানীর মৃত্যুহয়।

নানীর মৃত্যু নিশ্চিত জেনে নাতী পলাশ নিজের প্রায়শ্চিত্ব ভোগার জন্য লাশের পাশ বসে মোবাইল টেকনোলজীর মাধ্যমে গুগুলে র্চাজদিয়ে নরসিংদী পুলিশ সুপারের নাম্বারে কলকরে নানীকে হত্যাকরার ঘটনা প্রকাশ করে । পরে রাতেই জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় এবং নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নাতী কর্তৃক নানীতে হত্যা ও পুলিশের নিকট নাতীর আত্ব সর্মপনের হৃদয় বিধারক ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে।

সময় জার্নাল / আবুল বাশার বাছির

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ