ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ

প্রকাশিতঃ ৮:১০ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ১০ ডিসেম্বর ১৯

ভারতে নাগরিকত্বের জন্য ধর্মীয় পরীক্ষা চালানো হলে সেটি গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে ক্ষুণ্ন করতে পারে বলে আশঙ্কা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ভারতীয় লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) পাস হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের হাউস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটি এমন মন্তব্য করেছে। মঙ্গলবারবার্তা সংস্থা এএনআইয়ের খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, সোমবার (৯ ডিসেম্বর) ভারতজুড়ে তুমুল বিতর্কের মধ্যেই লোকসভায় পাস হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি)। এদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বিল উত্থাপন করলে এর পক্ষে ভোট পড়ে ৩০০টি। আর বিপক্ষে পড়ে ৮০টি।

লোকসভায় বিলটি পাস হওয়ার পরপরই যুক্তরাষ্ট্রের হাউস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটি বলেছে, ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র, উভয় দেশের মৌলিক ভিত্তিই ধর্মীয় একাধিকত্ব। এক্ষেত্রে নাগরিকত্বের জন্য যদি কোনো ধরনের ধর্মীয় পলীক্ষা চালানো হয়, তাহলে সেটি গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে ক্ষুণ্ন করতে পারে।

এর আগে গত ৪ ডিসেম্বর প্রস্তাবিত বিলটি অনুমোদন পেয়েছিল ভারতীয় মন্ত্রিসভায়। আগামী ১১ ডিসেম্বর সরকারপক্ষ এই বিল রাজ্যসভায় পেশ করতে পারে।

বিলটি ঘিরে ইতোমধ্যেই উত্তপ্ত দেশের উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলো। এই বিলের ফলে বহুসংখ্যক অবৈধ বসবাসকারী নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন বলে উদ্বেগ প্রকাশ করছে রাজ্যগুলো।

এছাড়া সংশ্লিষ্টরা আশঙ্কা করছেন, বিলটি পাস হওয়ার কারণে পাল্টে যাবে দেশের জনবিন্যাসের ধরন। কমে যাবে কাজের সুযোগ। একইসঙ্গে হ্রাস পাবে নিজস্ব সংস্কৃতিও।

বিলটিতে ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সংশোধন করার প্রস্তাব করা হয়েছে। আফগানিস্তান, বাংলাদেশ ও পাকিস্তান থেকে যাওয়া হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পারসি ও খ্রিস্টান অবৈধ অভিবাসীদের যাতে ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া যায়, এ হিসেবেই এ সংশোধনী।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ