মহাসড়কে মটরসাইকেল নিষিদ্ধ
ঈদযাত্রায় ২০ প্রস্তাব যাত্রী কল্যাণ সমিতির

প্রকাশিতঃ ১১:৩৬ অপরাহ্ণ, সোম, ২০ মে ১৯

নিউজ ডেস্ক : ঈদযাত্রা নিরাপদ করতে জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কে মটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধকরণসহ ২০ দফা প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

পাশাপাশি মহাসড়ক থেকে ফিটনেসবিহীন যানবাহন, নসিমন-করিমন, ইজিবাইক, অটোরিকশা, ব্যাটারি ও প্যাডেলচালিত রিকশা চলাচল বন্ধ করার দাবিও জানায় সংগঠনটি।

সোমবার (২০ মে) সংগঠনের মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী গণমাধ্যামে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, প্রতিবছর ঈদে সড়ক দুর্ঘটনায় বহু লোকের প্রাণহানি ও ক্ষয়ক্ষতি হয়ে থাকে। সড়ককে নিরাপদ করার জন্য দ্রুতগতির যানবাহনের জন্য আলাদা লেন চালু করতে হবে।

এবারের ঈদে দীর্ঘ ছুটি পরিকল্পিতভাবে কাজে লাগিয়ে রেশনিং পদ্ধতিতে ঈদযাত্রা নিশ্চিত হলে ভোগান্তি ও দুর্ঘটনামুক্ত যাত্রা নিশ্চিত করা সক্ষম হবে। এজন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে ২০ দফা প্রস্তাব অনুসরণের দাবি জানানো হয়।

উল্লেখযোগ্য প্রস্তাবগুলো হচ্ছে
১. জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে ফিটনেসবিহীন যানবাহন, নসিমন-করিমন, ইজিবাইক, অটোরিকশা, ব্যাটারি ও প্যাডেলচালিত রিকশার পাশাপাশি মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ
২. ঈদযাত্রায় মোটরসাইকেল নিষিদ্ধ
৩. গার্মেন্টস ও অন্যান্য শিল্প কলকারখানা রেশনিং পদ্ধতিতে ছুটির ব্যবস্থা
৪. টোল প্লাজার সব কটি বুথ চালু ও দ্রুত গাড়ি চলাচলের ব্যবস্থা
৫. মহাসড়কের পাশে অস্থায়ী হাটবাজার উচ্ছেদ
৬. দুর্ঘটনা প্রতিরোধে স্পিডগান ব্যবহার ও উল্টোপথের গাড়ি চলাচল বন্ধ
৭. মহাসড়ক অবৈধ দখল ও পার্কিংমুক্ত
৮. অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য বন্ধ
৯. অযান্ত্রিক যানবাহন ও পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী বহন নিষিদ্ধ
১০. ঈদের আগে ও পরে সড়কে যানবাহন থামিয়ে চাঁদাবাজি বন্ধ
১১. লাইসেন্সবিহীন ও অদক্ষ চালক ঈদযাত্রায় নিষিদ্ধ
১২. বিরতিহীন ও বিশ্রামহীনভাবে যানবাহন চালানো নিষিদ্ধ
১৩. জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কে ফুটপাত, জেব্রাক্রসিং, পদচারী সেতু, আন্ডারপাস, ওভারপাস দখলমুক্ত করে যাত্রীসাধারণের যাতায়াতের ব্যবস্থা এবং
১৪. ঝুঁকিপূর্ণ সড়ক দ্রুত মেরামতের ব্যবস্থা করা।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ