মশা আপনার ভোট খেয়ে ফেলবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ১২:৩৩ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০

ঢাকার নব-নির্বাচিত মেয়রদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আপনারা মনোযোগ দিয়ে কাজ করবেন। মশার উপদ্রব কমাবেন। ক্ষুদ্র প্রাণী হলেও মশা কিন্তু খুব শক্তিশালী প্রাণী। মশাকে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন। তা না হলে মশা কিন্তু আপনার ভোট খেয়ে ফেলবে।

বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার কার্যালয়ের শাপলা হলে দুই মেয়রকে শপথবাক্য পাঠ করানোর পর এসব কথা বলেন। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম দুই সিটি করপোরেশনের সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলরদের শপথবাক্য পাঠ করান।

শেখ হাসিনা বলেন, কাজের ক্ষেত্রে কোনোরকম দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। এর পরেও যদি কেউ দুর্নীতি করে, কোনো মুখ চাওয়া-চাওয়ি হবে না। সে যেই হোক, আমি কিন্তু কোনো ছাড় দেবে না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্থানীয় সরকারগুলোকে আমরা আরও শক্তিশালী করতে চাই। সেখানে পর্যাপ্ত পরিমাণ বাজেট দেয়া হচ্ছে। উন্নয়নের জন্য আমরা শুধু শহর নয় গ্রামের উন্নয়ন করতে চাই। এজন্য আমরা আলাদা আলাদা বাজেট ঘোষণা করছি। একটা কথা মনে রাখবেন, কেউ আপনাকে ভোট দিয়েছে, আবার কেউ আপনাকে ভোট দেয় নাই। যখন আপনি নির্বাচিত হয়েছেন তখন মনে করবেন আপনি সকলের প্রতিনিধি। এটাই গণতন্ত্রের নিয়ম। এটা মাথায় রেখে সকলের উন্নয়নে আপনাকে কাজ করতে হবে। কেউ যেন বঞ্চিত না হয়।

তিনি আরো বলেন, আমরা ঢাকার উন্নয়নে মেগা প্রকল্প গ্রহণ করেছি। সেই প্রকল্প আপনারা বাস্তবায়ন করবেন। এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে গিয়ে কেউ যেন দুর্নীতি না করেন। কারণ আমরা দুর্নীতি, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছি। কেউ যদি দুর্নীতি করেন তাকে কিন্তু আমি ছাড়ব না। আজ যে শপথ গ্রহণ করলেন সেই শপথ অনুযায়ী আপনি চলবেন। জনগণ যেন আপনাদের সেবা থেকে বঞ্চিত না হয়। মনে রাখবেন, জনগণ আপনাকে ভোট দিয়েছে সেবা করার জন্য।

এ সময় প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিতব্য মুজিববর্ষের আনুষ্ঠানিকভাবে উদযাপনের জন্য নবনির্বাচিত মেয়র, কাউন্সিলর ও দলীয় নেতাকর্মীদের দাওয়াত দেন শেখ হাসিনা।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ