মায়ের জানাজায় অংশ নিতে প্যারোলে মুক্ত গিয়াস আল মামুন

প্রকাশিতঃ ১২:০৭ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: মায়ের জানাজায় অংশ নেয়ার জন্য কারাগার থেকে প্যারোলে মুক্তি পেয়েছেন ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন। মায়ের মৃত্যুতে ৪ ঘন্টার জন্য (৯টা থেকে ১টা পর্যন্ত) কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে প্যারোলে মুক্তি পান তিনি।

তার মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ডেপুটি জেলার জাহিদুল ইসলাম জানান, ৪ ঘণ্টার জন্য প্যারোলে মুক্তি পেয়েছেন গিয়াস আল মামুন। ওই সময় পার হলে তাকে ফের কারাগারে নিয়ে আসা হবে। মুক্তি পাওয়ার পর তাকে রাজধানীর শুক্রবাদের বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ডেপুটি জেলার জানান, প্যারোলের শর্ত অনুযায়ী গিয়াস আল মামুন নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে যেতে পারবেন না, সার্বক্ষণিক পুলিশ পাহারায় থাকবেন এবং প্যারোলের সময় শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তিনি কারাগারে পৌঁছাবেন।

প্রসঙ্গত, বার্ধক্যজনিত কারণে বুধবার ভোরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গিয়াস আল মামুনের মা ৯৩ বছর বয়সী মোসাম্মত হালিমা খাতুন মারা যান।

মায়ের মৃত্যুতে মামুনের প্যারোলে মুক্তি চেয়ে আবেদন করেন তার ভাই জালাল উদ্দিন রুমী।

বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় ২০০৭ সালের ৩০ জানুয়ারি যৌথ বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন গিয়াস উদ্দিন আল মামুন। এরপর থেকে তিনি কারাগারেই আছেন। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, দুর্নীতি, মানি লন্ডারিং, কর ফাঁকিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২০টিরও বেশি মামলা হয়।

২০১৩ সালে একটি মামলায় তার ৭ বছরের কারাদণ্ড হয়। এরও আগে অস্ত্র আইনের মামলায় ১০ বছর কারাদণ্ড হয়েছে, যা পরে হাইকোর্ট বাতিল করে দেন। এ ছাড়া অবৈধ সম্পদ অর্জনের এক মামলায়ও তিনি ১০ বছরের দণ্ডে দণ্ডিত হন।

গিয়াস আল মামুন বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য হাফিজ ইব্রাহীমের ভাই। তিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ