মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ভিপি নুরের পিছু নিয়েছিলো

প্রকাশিতঃ ৩:২৯ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৮ ডিসেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরের নেতৃত্বাধীন বিক্ষোভ মিছিলের পিছু নিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা। এ সময় তাদের হাতে লাঠিসোঁটা ও রডসহ দেশীয় অস্ত্র দেখা গেছে।

বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে জড়ো হন নুরের নেতৃত্বাধীন সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা।

ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) এবং মঙ্গলবারের কর্মসূচিতে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের হামলার প্রতিবাদে তারা স্লোগান দিতে থাকেন।

একই সময় সেখানে আসেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা মঙ্গলবার তাদের ওপর হামলার অভিযোগ এনে ডাকসু ভিপি ও তার অনুসারীদের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।

দুপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা হ্যান্ডমাইকে দুই পক্ষকেই কর্মসূচি বন্ধ করে ওই এলাকা ত্যাগ করার জন্য বলতে থাকে।

ঘটনাস্থলে থাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি বলেন, একপর্যায়ে নুরের নেতৃত্বে সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা দোয়েল চত্বর হয়ে মিছিল নিয়ে প্রেসক্লাবের দিকে রওনা হন।

এরপরই মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা মিছিলটি অনুসরণ করতে থাকেন। এ সময় তাদের হাতে লাঠিসোঁটা ও রডসহ দেশীয় অস্ত্র দেখা গেছে। যে কোনো মুহূর্তে সংঘর্ষের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ভারতের বিতর্কিত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে দেশটিতে চলমান আন্দোলনের প্রতি সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সংহতি সমাবেশের ডাক দেয় ভিপি নুরের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদ।

সমাবেশের আগে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নেয়। ডাকসুর ভিপি নুরুল হকসহ তার অনুসারীরা ৪টার দিকে সেখানে আসলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক আল মামুন দলবল নিয়ে তাদের ওপর হামলা করে।

হামলায় নুরের হাতের আঙুল ভেঙে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেনসহ প্রায় ১০ জন আহত হন। আহতরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ