ময়মনসিংহে নারী কনস্টেবলকে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৭:৩৪ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০

মো. মঈন উদ্দিন রায়হান : ময়মনসিংহে এক নারী পুলিশ কনস্টেবলকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তার কনস্টেবল স্বামীকে পুলিশ আটক করেছে।

কোতোয়ালি থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) জুমার নামাজের আগে শহরের উত্তর পুলিশ লাইন্স এলাকার বাসা থেকে সুইটি আক্তার (২২) নামে পুলিশ কনস্টেবলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছেন।

সুইটি নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

ওসি আরও বলেন, স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সুইটির স্বামী পুলিশ কনস্টেবল হাফিজুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সুইটির ভাই ময়না মিয়ার অভিযোগ, ‘সুইটির সঙ্গে হাফিজুরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরে হাফিজুর বিয়ে করতে চাননি। কিন্তু চাপাচাপির পর তিনি বিয়েতে রাজি হন। সুইটি অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর হাফিজুর গর্ভপাতের জন্য চাপ দেন। তাতে রাজি না হওয়ায় হাফিজুর তাকে হত্যা করেছেন।’

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ