ময়মনসিংহে শিক্ষিকার পিটুনিতে স্কুলছাত্র হাসপাতালে

প্রকাশিতঃ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ, সোম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০

মঈন উদ্দিন রায়হান: ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে নাহিদ হাসান (৭) নামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া তৃতীয় শ্রেণীর এক ছাত্র’কে শিক্ষিকার ডাস্টারের পিটুনিতে আহত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। আহত শিক্ষার্থীকে রবিবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার দুপুরে উপজেলার খরমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষার্থীর পিতা আবু রায়হান বলেন, দুপুরে গণিত পড়া না পারায় ঐ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ফরিদা খাতুন আমার ছেলেকে ডাস্টার দিয়ে পিঠে এলোপাথাড়ি পেটায়। ছেলে ভয়ে বাড়িতে কাউকে কিছু বলেনি। রাতে খাবার খাওয়ার সময় সে বমি করে। পরে ঘটনা খুলে বললে আমি দ্রুত তাকে হাসপাতালে ভর্তি করি।

এ ঘটনার খবর পেয়ে রাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ রেজাউল করিম, সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন আহত শিক্ষার্থীকে দেখতে হাসপাতালে যান।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডাঃ সৈয়দ সাদ ইবনে ওয়াসেক বলেন, রাতে ঐ শিক্ষার্থীকে তার বাবা মা হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার চিকিৎসা চলছে। প্রাথমিক ভাবে দেখে মনে হচ্ছে কাঠের কোন বস্তু দিয়ে তাকে পিঠে আঘাত করা হয়েছে।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফরিদা খাতুন বলেন, আমি ঐ শিক্ষার্থীকে হাত দিয়ে মেরেছি। ডাস্টার দিয়ে নয়।

এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা স্বপন কুমার সূত্রধর বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। এই বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ রেজাউল করিম বলেন, আমি আহত শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলেছি। অভিযুক্ত ঐ শিক্ষিকার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যাতে করে এমন কাজ কেউ না করতে পারে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ