যাদু ডিজিটালের সেবায় গ্রাহকদের বিরক্তি

প্রকাশিতঃ ১:৪৬ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৬ অক্টোবর ১৯

স্টাফ রিপোর্টার : অনলাইনে আলো ছড়াতে এসে গ্রাহকদের নিরাশ করছে যাদু ডিজিটাল। ভালো সার্বিসের নামে পূর্ব নোটিশ ছাড়াই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করানো তাদের নিত্যদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছ। কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করে গ্রাহকরা সমাধান না পেয়ে তাদের সেবার মান নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিরক্তি প্রকাশ করছেন।

কেবল অপারেটরের কাছ থেকে সংযোগ নিয়েও তার, কানেক্টর এবং অ্যামপ্লিফায়ারের মানের কারণে বেশির ভাগ টিভি চ্যানেলের নিম্নমানের ছবি ও শব্দ জটিলতা থেকে বাঁচতে অনেকেই চ্যানেল বক্সসহ সেট টপ বক্স সেবা ব্যবহার করছেন।

কিন্তু ডিটিএইচ সেবা চালুর পর থেকে সেবার মান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় অনেকেই এই সেবা পরিবর্তনের কথা ভাবছেন।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল থেকেই হটাৎ করেই সার্ভিস বন্ধ হয়ে যায় যাদু ডিজিটালের। কারিগরি ত্রুটির কথা স্বীকার করে স্থানীয় কেবল অপারেটররা জানান, কোন রকমের নোটিশ না দিয়েই কারিগরী কাজ শুরু করে দিয়েছে যাদু ডিজিটাল। পরবর্তীতে ঠিক হলেও আমরা এসব বিষয়ে সেবার মান নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হচ্ছি।

বিষয়টি জানতে চাইলে যাদু ডিজিটালের অফিসিয়াল কাস্টমার কেয়ারে (880 961 301 6503) ফোন দিলে, অপারেটর মিতু এই প্রতিবেদককে জানান, সার্ভিস ডাউন ছিল কিছু সময়ের জন্য তবে সেটি তারা চেষ্টা চালিয়ে আবার পুনরায় সংযোগ চালু করতে পেরেছেন। তবে এর চাইতে বেশি কোন তথ্য দিতে রাজি হয়নি অপারেটর। তিনি সরাসরি অফিসে গিয়ে তথ্য নিতে অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে বলেন।

ওয়েবসাইটে দেয়া নাম্বারে (880 961 396 1313) ফোন করলে বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়া হয়। এবং তিনি বলেন, সার্ভিস বন্ধ ছিল জানতাম। একটি কারিগরি ত্রুটির কারনে সিস্টেম বিকল হয়। তবে সেটি ঠিক করা হয়েছে কিনা তা জানাতে পারেন নি তিনি।

এদিকে দিনভর সার্ভিস না পেয়ে অভিযোগের পাহাড় জমে যায় স্থানীয় ডিস্ট্রিবিউটর ও অপারেটরদের কাছে।

মহাখালীর টিভি গেইট এলাকার প্রাইম ওয়াল্ড নামের অপারেটর এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইদানিং অভিযোগ বেড়েছে গ্রাহকদের। এছাড়া বক্সের মানও তেমন সন্তোষজনক নয়। এমন ধরনের অভিযোগ ধানমন্ডির ক্রিসেন্ট রোডের দেশ ভিডিও এর অপারেটরদেরও।

অপারেটররা বলছেন, সময়মতো সমস্যার সমাধান না পাওয়া, সার্ভিসে বার বার বিঘ্ন ঘটাসহ সেবার মান পড়ে যাওয়ায় গ্রাহক হারাতে বসেছেন তারা। এরই মধ্যে ডিটিএইচ সেবা তাদের মার্কেটিং নেটওয়ার্ক বাড়িয়েছে। তাই সেবার একটু বিচ্যুতি ঘটলেই গ্রাহকরা তাদের সেবা সুইচ করে অন্য সেবার দিকে ঝুঁকছেন।

অভিযোগ একই রকমভাবে পশ্চিম রাজাবাজারের প্রাইম কেবল নেটওয়ার্ক, পুরান ঢাকার সুরের ভুবন কেবল নেটওয়ার্ক, মগবাজারের মিডিয়া স্যাটেলাইট, মিরপুরের সকাল সন্ধ্যা কেবল নেটওয়ার্ক, উত্তরার উত্তরা কেবল নেটওয়ার্ক, কাওলার বিজনেস সলিউশন কেবল নেটওয়ার্কসহ আরো বেশকিছু কেবল অপারেটর একই রকমের অভিযোগ স্বীকার করেছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ