রংপুরকে সহজেই হারালো মুশফিকের খুলনা

প্রকাশিতঃ ৬:৪৩ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২০ ডিসেম্বর ১৯

মাত্র ১৩৭ রানের পুঁজি নিয়ে লড়াইটা করতে পারেননি রংপুর রেঞ্জার্সের বোলাররা। ১৩ ওভারের মধ্যেই (১২.৩ ওভার) রংপুরকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে মুশফিকুর রহীমের দল খুলনা টাইগার্স।

লক্ষ্য ছিল ১৩৮ রানের। ওপেনিংয়ে নেমে নাজমুল হোসেন শান্ত মাত্র ১ রানে সাজঘরের পথ ধরলেও খুলনার তাতে বড় কোনো ক্ষতি হয়নি। দ্বিতীয় উইকেটে ৬১ রানের জুটি গড়েন রহমানুল্লাহ গুরবাজ আর রাইলি রুশো।

২২ বলে ১ চার আর ৪ ছক্কায় ৩৭ রান করার গুরবাজকে মোস্তাফিজুর রহমানের ক্যাচ বানিয়ে জুটিটি শেষ পর্যন্ত ভাঙেন মুকিদুল ইসলাম। তবে পরের সময়টায় আর কোনো বিপদে পড়েনি খুলনা।

মুশফিকুর রহীমকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন রুশো। ৩১ বলে ৯ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটসম্যান অপরাজিত থাকেন ৬৭ রানে। মুশফিক করেন ১৭ বলে হার না মানা ১৭ রান।

এর আগে মোহাম্মদ নাইম শেখ আর ফজলে মাহমুদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের পরও ৯ উইকেটে ১৩৭ রানের বেশি এগুতে পারেনি রংপুর রেঞ্জার্স।

খুলনার বোলারদের তোপে শুরু থেকেই স্বস্তিতে ছিল না টস হেরে ব্যাট করতে নামা রংপুর। বিধ্বংসী চেহারায় দাঁড়িয়ে যাওয়ার আগেই মোহাম্মদ শাহজাদকে (৭ বলে ১১) সাজঘরের পথ দেখিয়ে দেন মোহাম্মদ আমির।

মুশফিকুর রহীমকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন রুশো। ৩১ বলে ৯ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটসম্যান অপরাজিত থাকেন ৬৭ রানে। মুশফিক করেন ১৭ বলে হার না মানা ১৭ রান।

এর আগে মোহাম্মদ নাইম শেখ আর ফজলে মাহমুদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের পরও ৯ উইকেটে ১৩৭ রানের বেশি এগুতে পারেনি রংপুর রেঞ্জার্স।

খুলনার বোলারদের তোপে শুরু থেকেই স্বস্তিতে ছিল না টস হেরে ব্যাট করতে নামা রংপুর। বিধ্বংসী চেহারায় দাঁড়িয়ে যাওয়ার আগেই মোহাম্মদ শাহজাদকে (৭ বলে ১১) সাজঘরের পথ দেখিয়ে দেন মোহাম্মদ আমির।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ