টেকনাফ স্থল বন্দর
রাজস্ব আদায় ১১ কোটি টাকা

প্রকাশিতঃ ১২:০৫ অপরাহ্ণ, সোম, ৪ নভেম্বর ১৯

কর্পোরেট ডেস্ক: কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দরে গত অক্টোবর মাসে প্রায় ১১ কোটি টাকার রাজস্ব আদায় হয়েছে।সংশ্লিষ্টরা জানান চলতি বছরের অক্টোবর মাসে মোট ১০ কোটি ৮২ লাখ টাকার রাজস্ব আদায় হয়েছে এই বন্দর থেকে। দেশের সংকট মোকাবেলায় পেঁয়াজের আমদানি বৃদ্ধির কারণে অন্যান্য পণ্য কম আমদানি কম হয়েছে। ফলে রাজস্ব আদায় তেমন আশানুরূপ হয়নি।

স্থলবন্দরের শুল্ক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯-২০ অর্থ বছরের অক্টোবর মাসে ৫০২টি বিল অব এন্ট্রির মাধ্যমে ১০ কোটি ২৮ লাখ ৪৪ হাজার টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে। এ মাসে মিয়ানমার থেকে পণ্য আমদানি হয়েছে ১২৭ কোটি ৯৩ লাখ ২৬ হাজার টাকার। যার মধ্যে ২০ হাজার ৮৪৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।

অপরদিকে ৬৫টি বিল অব এক্সপোর্টের মাধ্যমে ২ কোটি ১২ লাখ ৩৪ হাজার টাকার পণ্য মিয়ানমারে রফতানি করা হয়েছে।

এছাড়া শাহপরীরদ্বীপ করিডোরে মিয়ানমার থেকে ৩৯০১টি গরু, ৩১৫৩টি মহিষ ও ১২টি ছাগল আমদানি করে ৩৫ লাখ ২৯ হাজার ৪ শত টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, সীমান্ত বাণিজ্যে সুষ্ঠু পরিবেশ বিরাজ করছেনা। ব্যবসায়ীদের পোহাতে হচ্ছে নানা সমস্যা। এখনো বন্দরে পর্যাপ্ত শ্রমিক ও অবকাঠামোর অভাব রয়েছে। সীমান্ত বাণিজ্যকে গতিশীল করতে দুদেশের মধ্যে চলমান সমস্যা সমূহ চিহ্নিত করে দ্রুত সেগুলো সমধানের দাবী করেছেন তারা।

টেকনাফ স্থলবন্দর শুল্ক কর্মকর্তা মো. আবছার উদ্দিন বলেন, অক্টোবর মাসে পেঁয়াজ আমদানি বেড়েছে, যার ফলে অন্যান্য পণ্য কম এসেছে। এতে মাসিক রাজস্ব আদায় একটু কম হয়েছে। দেশের স্বার্থে পেঁয়াজ আমদানি করছে ব্যবসায়ীরা। তবে বর্তমানে পেঁয়াজের পাশাপাশি ব্যবসায়ীদের অন্যান্য পণ্যের আমদানি বাড়াতে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ