রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে পাঠানোই স্থায়ী সমাধান

প্রকাশিতঃ ৫:৩৪ অপরাহ্ণ, শনি, ৫ ডিসেম্বর ২০

সময় জার্নাল প্রতিবেদক : রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোই টেকসই সমাধান বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীতে আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, পরিস্থিতি সামাল দিতে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠানোর উদ্যোগ পযর্বেক্ষণ করছে জাতিসংঘ। ভাসানচরে তাদের পাঠানোর বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখা হচ্ছে বলে জানান মিয়া সেপ্পো।

তবে ভাসানচরে স্থানান্তরে কোনো সমাধান দেখেছেন না জাতিসংঘের এ কর্মকর্তা। তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিক। তাই স্থায়ী সমাধান অবশ্যই তাদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়া। কয়েক লাখ রোহিঙ্গা কক্সবাজারে বসবাস করছে। তাই রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর একটি প্রাথমিক ধাপ বলেও মনে করেন মিয়া সেপ্পো।

এদিকে, আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবসের আলোচনা সভায় স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, করোনায় বা যেকোনো দুর্যোগ মুহূর্তে স্বেচ্ছাসেবীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন। দেশে স্বেচ্ছাসেবা নীতিমালা প্রণয়নের প্রস্তুতি চলছে, যা হবে জাতিসংঘের নীতিমালার আলোকে।

তিনি বলেন, যেকোন দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে স্বেচ্ছাসেবীরা কাজ করে গেলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো স্বেচ্ছাসেবীদের তেমন কোন স্বীকৃতি আমাদের দেশে নেই। তাই নীতিমালা তৈরি হলে স্বেচ্ছাসেবীরা স্বেচ্ছা শ্রমে আরো বেশি উৎসাহিত হবে বলে মনে করেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী। পরে, বিভিন্ন দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় ১৫ জন স্বেচ্ছাসেবীর হাতে পুরস্কারের চেক ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।