শীতের তীব্রতা আরো বাড়তে পারে

প্রকাশিতঃ ৪:০৪ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২৭ ডিসেম্বর ১৯

সময় জার্নাল প্রতিবেদন: সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে রাজধানীসহ দেশের অনেক জায়গায় বৃহস্পতিবার রাতে বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টি কোথাও বেশি আবার কোথাও গুঁড়ি-গুঁড়ি। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শুক্রবার সারাদিন আকাশ মেঘলা থাকবে। কোথাও হালকা কোথাও ভারী বৃষ্টি হবে। তবে তা একটানা নয়, থেমে থেমে। শনিবারও একই অবস্থা থাকবে। তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি আরো কমতে পারে।

আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায়, বৃষ্টি হলেও দেশের বেশিরভাগ অঞ্চলে তাপমাত্রা এখন বেশি। মেঘ আর কুয়াশার কারণে তাপমাত্রা কমেনি। তবে বাতাস থাকায় শীত আগের মতো অনুভূত হচ্ছে। মেঘ কেটে গেলে তাপমাত্রা আরো নেমে যাবে। যেসব এলাকায় এখন শৈত্যপ্রবাহ আছে সেসব জায়গায় এটি বিস্তার লাভ করতে পারে।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত যশোরে সর্বোচ্চ ১৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। ঢাকা বিভাগের প্রায় সব জায়গায় বৃষ্টি হয়েছে। ঢাকায় ৫, টাঙ্গাইলে ৫, ফরিদপুরে ৯, মাদারীপুরে ৪, গোপালগঞ্জে ৯, কিশোরগঞ্জের নিকলীতে ৩ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে সীতাকুণ্ডে ১০, কুমিল্লায় ৮ ও চাঁদপুরে ৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া অন্য জেলাগুলোতেও বৃষ্টি হয়েছে। পাবনার ঈশ্বরদীতে ৩, খুলনা ও মোংলায় ৮, পটুয়াখালীতে ৮ ও বরিশালে ৪ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।

বৃষ্টি হলেও আজ শুক্রবার তাপমাত্রা খুব একটা কমেনি। আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেতুঁলিয়ায় ৯ দশমিক ২। যা বৃহস্পতিবার ছিল ৫ দশমিক ৭। এদিকে ঢাকায় আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ দশমিক ২ যা বৃহস্পতিবার ছিল ১২ দশমিক ৫। এছাড়া আজ ময়মনসিংহে ১২ দশমিক ৫ যা বৃহস্পতিবার ছিল ৯ দশমিক ৪, চট্টগ্রামে আজ তাপমাত্রা একই আছে (১৩ দশমিক ৫), সিলেটে ১৩ দশমিক ২, বৃহস্পতিবার ছিল ১২ দশমিক ৪, রাজশাহীতে ১১ দশমিক ৮, বৃহস্পতিবার ছিল ১০, রংপুরে ১১ দশমিক ৫, বৃহস্পতিবার ছিল ৯ দশমিক ৫, খুলনায় কমে ১২ দশমিক ৮, বৃহস্পতিবার ছিল ১৪ এবং বরিশালে ১৩ দশমিক ২ যা বৃহস্পতিবার ছিল ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ