সম্মেলনের সিদ্ধান্ত ছাত্রদলের হাতে: ফখরুল

প্রকাশিতঃ ১:৩১ অপরাহ্ণ, শনি, ১৪ সেপ্টেম্বর ১৯

জার্নাল ডেস্ক : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দাবি করে বলেন, ছাত্রদলের সম্মেলনের বিষয়ে তারাই সিদ্ধান্ত নিবেন এটা তাদের ব্যাপার। এখানে বিএনপির আমাদের কোন হাত নেই। আমাদেরকে যেটা পক্ষ করা হয়েছে আমরা আমাদের উত্তরগুলো কোর্টের কাছে যথাসময়ে দেব। একটা দল আসবে একটা দল যাবে-এটাই নিয়ম। কিন্তু তারা যদি ভাবেন যতদিন পৃথিবী থাকবে ততদিন তারা থাকবেন, তাহলে তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সংবাদ ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমি বিএনপির সেক্রেটারি জেনারেল হিসেবে এ কথা বলছি না। সম্মেলনের দায়িত্বে যারা আছেন তারাই এবিষয়ে ভালো বলতে পারবেন। এবং সম্মেলন ছাত্রদলের ব্যাক্তিগত ব্যাপার তারাই তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন।

তিনি বলেন, আপনারা সবাই ছাত্রদলের কাউন্সিলের স্থগিতাদেশের ব্যাপারে জানতে আগ্রহী, কী সিদ্ধান্ত?

তিনি বলেন, হঠাৎ করে এ বিষয়টা সামনে এসেছে, একেবারে শেষ মুহূর্তে সকলের অগোচরে। বোঝা যায়, এখানে সরাসরি সরকারের হস্তক্ষেপ আছে বলেই স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছে।

তিনি প্রশ্ন রাখেন, আসলে বর্তমানে সরকার যারা আছেন তারা কি চান বাংলাদেশে ন্যূনতম গণতন্ত্রের পরিস্থিতি, পরিবেশ থাকুক?

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে বর্তমান সরকার যে কালচার তৈরি করেছে, রাজনৈতিক সংস্কৃতি তৈরি করেছে, এটা ভয়বাহ। তা হলো আদালতকে দিয়ে রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করা। গত দশ বছর ধরে তারা এই সংস্কৃতি তৈরি করেছে।

সরকার আদালতকে ব্যবহার করে বিভিন্ন আইন-কানুন তৈরি করে গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, আদালতকে প্রশ্নবিদ্ধ করে দেয়া, আদালতকে দলীয়করণের দিকে নেয়া দেশ ও জাতির জন্য শুভ নয়।

তিনি আরও বলেন, রাজনীতিতে আদালতের হস্তক্ষেপ কখনোই কোনো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের জন্য, জাতির ভবিষ্যতের জন্য শুভ হতে পারে না

তিনি বলেন, একটা দল আসবে একটা দল যাবে-এটাই নিয়ম। কিন্তু তারা যদি ভাবেন যতদিন পৃথিবী থাকবে ততদিন তারা থাকবেন, তাহলে তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ